চেনা অপুর অচেনা গল্প !

শাশ্বত চ্যাটার্জ্জী

১৯শে ডিসেম্বর ১৯৭০ সালে বাংলা ছবির নায়ক অভিনেতা ও ডাক্তার শুভেন্দু চ্যাটার্জী ও অঞ্জলী চ্যাটার্জীর ঘরে জন্মগ্রহণ করেন অপু। কলকাতাতেই পড়াশুনো পাশাপাশি কিছু থিয়েটার। আজকের শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় কি ভাবে হলেন? যুবক শাশ্বত তখন সদ্য যৌবনে। সেসময় পরিচালক রাজা মিত্র করছিলেন তাঁর ‘নয়নতারা’ ছবি। ১৯৯৭। নামভূমিকায় মমতা শংকর। সঙ্গে সৌমিত্র চ্যাটার্জ্জী, সাবিত্রী চ্যাটার্জ্জী, রবি ঘোষের মতো খ্যাতনামা শিল্পীরা। নয়নতারা এক থিয়েটার মহিলা নাট্যশিল্পীর গল্প তার লড়াইয়ের গল্পের মননশীল ছবি।
শাশ্বত র অভিষেক ছবি নয়ন তারা এই ছবিতেই মমতা শংকরের পুত্রের ভূমিকায় ছবির জগতে প্রথম অভিষেক হল শুভেন্দু পুত্র শাশ্বত ওরফে অপুর। নয়নতারা সেসময় অনেক পুরস্কার পায়। আনন্দলোক সেরা নায়িকার পুরস্কার পান মমতা শংকর নয়নতারার জন্য। দেবশ্রী রায় মমতা শংকরকে দেন সে পুরস্কার। যে ছবি অনেকেই দেখেননি চর্চা নেই। শাশ্বত আছেন এখনকার বব বিশ্বাস, শবরের ফ্যানরা জানেন নাহ। এর আগে অবশ্যি সন্দীপ রায়ের তোপসে রূপে ‘বাক্স রহস্য’ তে অবতীর্ন হন শাশ্বত। কলকাতা দূরদর্শনে দেখানো হয়। সব্যসাচী চক্রবর্তী ফেলুদা, রবি ঘোষ জটায়ু, শাশ্বত তোপসে। তোপসে রূপে শাশ্বতবাক্স রহস্য যেহেতু টিভি রিলিজ ছবি তাই শাশ্বতর বড় পর্দায় রিলিজ ছবি প্রথম হিসেবে নয়নতারা কেই ধরতে হবে। শেয়াল দেবতা রহস্য, যতকান্ড কাঠমুন্ডুতে ফেলুদা সিরিজে একই সঙ্গে দূরদর্শনে করেন। শাশ্বত সমরেশ মজুমদারের কালপুরুষ অবলম্বনে শৈবাল মিত্র র হিন্দি ধারাবাহিকে অভিনয় করেন। এরপর শাশ্বত করেছেন কিছু সহ অভিনেতার রোল। এরমধ্যে যেমন বলতেই হয় পরিচালক প্রভাত রায়ের কথা। তাঁর পরিচালিত ‘খেলাঘর’ থেকে ‘তুমি এলে তাই’ ছবিতে ছোটো অনেক রোল করেছেন শুভেন্দু পুত্র। এভাবে অনেক ছবিতে, কিছু ধারাবাহিকে করেছিলেন ছোটো ছোটো রোল। শাশ্বত কে বড় ব্রেক দিলেন মেগা সিরিয়ালের এক জনক রবি ওঝা। ‘এক আকাশের নীচে ‘। নব্বই দশকে আলফা বাংলায় অধুনা যার নাম জি বাংলা চ্যানেলে বিখ্যাত মেগা। বাড়ির সদ্য ডাক্তার হওয়া ছোটো ছেলে আকাশের ভূমিকায় শাশ্বত। একান্নবর্তী পরিবারের গল্প।শাশ্বত
রবি ওঝা আজ প্রয়াত। উনি প্রথম সিরিয়ালের নায়ক রূপে পথ চলতে শেখান শাশ্বত কে। শাশ্বত মা আম্মার চরিত্রে সুমিত্রা মুখোপাধ্যায়ের সেরা একটি কাজ এই মেগা। শাশ্বত র ডক্টর প্রেমিকার ভূমিকায় সুনিতা সেনগুপ্ত। শাশ্বত স্ত্রী নন্দিনীর ভূমিকায় তিনবার চরিত্র বদল হয় রুমনি চ্যাটার্জ্জী, অদিতি চ্যাটার্জ্জী ও দেবলীনা দত্ত। এক আকাশের নীচে ও আকাশ কে আজও সেসময়ের দর্শক মনে রেখেছে। এক আকাশের নীচে তে শাশ্বত ও তার ভাইঝির পাখি চরিত্রে নবাগতা অভিনেত্রী কনিনীকা বন্দ্যোপাধ্যায় বেশ হিট হওয়ায় রবি স্যার ভেবে ফেলেন এই দুই মুখকে নায়ক নায়িকা করে তাঁর প্রথম ফিচার ফিল্ম করার গল্প। শাশ্বত চ্যাটার্জ্জীর প্রথম নায়ক রূপে ছায়াছবি বড় পর্দায় রবি ওঝার ‘ আবার আসব ফিরে ‘। নায়িকা কনিনীকা। আরেকটি বিশেষ ভূমিকায় ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়। শাশ্বত কিন্তু কিছুদিন এক আকাশের নীচে সিরিয়াল ডিরেক্টও করেছেন এসময় টা যখন রবি সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত থাকতেন। শ্যুট সেরে সিরিয়াল পরিচালনা অভিনয় দুই করতেন শাশ্বত।শাশ্বত চ্যাটার্জ্জী
২০০৪ এ মুক্তি পায় এ ছবি। স্বাধীনতা ও একটি জাতিস্মর মেয়ের প্রেক্ষাপটে ছবি। শাশ্বত কে বেশ কমার্শিয়াল মোড়কে দেখানো হয় নায়ক রূপে। কিন্তু ‘আবার আসবো ফিরে’ সুপার ফ্লপ করে। ছবির টাইটেল গান শুভমিতা শুভঙ্কর ভাস্বরের কন্ঠে বেশ জনপ্রিয়তা পায়। ছবিটার অন্যরকম গল্প শাশ্বত কেও তখন বড় পর্দার নায়ক রূপে প্রসেনজিৎ জিতের পাশাপাশি নেয়নি দর্শক। এই তথ্য গুলো উইকিপিডিয়ায় ব্রাত্য। কিন্তু নায়ক রূপে শাশ্বত র প্রথম এ ছবিকে অস্বীকার করা যায়না। একটি মননশীল কাজ। আবার আসব ফিরে র মাঝে মৃণাল সেনের শেষ ছবি ‘আমার ভূবন’ এ নূর সহনায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন শাশ্বত নন্দিতা দাশের সঙ্গে। এরপর আবার অরন্যে,দোসর, বং কানেকশান।
দোসর ছবিতে শাশ্বত চ্যাটার্জ্জী !অঞ্জন দত্ত নিলেন শাশ্বত কে ‘চলো লেটস গো’ তে। এই শেখর চরিত্রটিতে বেশ নাম করলেন শাশ্বত। এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। বলিউডে কাহানি তে ভিলেন বব বিশ্বাস বিদ্যা বালান র সঙ্গে কি অরিন্দম শীলের শবর নায়ক রূপে সেরা বক্স অফিস হিট শাশ্বত র। নামতে নামতে ছবিতে পাড়ান মাস্তান কিংবা ‘C/O স্যার’ নায়ক জয়ব্রত রায়। শাশ্বত চ্যাটার্জ্জীআমরা সেই দিক গুলো নিয়েই আজ বললাম যেগুলো হারিয়ে গেছে কিংবা ইন্টারনেটে নেই শাশ্বত চ্যাটার্জ্জী সম্পর্কে। রোম্যান্টিক নায়ক রূপে শাশ্বত সফল ছোটো পর্দায়। বড় পর্দায় অন্য ধারার শক্ত চরিত্র গুলিতেই মাত করেছেন নায়ক রূপে। এগিয়ে চলুন শবর , জয়ব্রত রে , ধীমান , অজিত ব্যানার্জ্জী , বঙ্কু বাবু। আর কি কোন চরিত্র বাদ পড়ে গেল? শাশ্বত চ্যাটার্জ্জী অভিনীত? শাশ্বত চ্যাটার্জ্জী

ঠিক ধরেছেন ঋত্বিক ঘটকের জীবনী ছবি কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের ‘মেঘে ঢাকা তারা’। ঋত্বিক ঘটকের ভূমিকায় শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। একদিন বড়পর্দায় ‘আবার আসব ফিরে’ র যে নব্য তরুন কে নেয়নি তারাই বলল ঋত্বিক ঘটক রূপে শাশ্বত সেরা। সারাজীবনের শ্রেষ্ঠ অভিনয়। যদিও শিল্পীর এখনও অনেক পথ চলা বাকি। আবার আই পি এস শবর রূপে স্মার্ট অভিনয়ে বক্স অফিস হিট শাশ্বত।শাশ্বত চ্যাটার্জ্জীশাশ্বত শাশ্বত হয়ে থাকুন চলচ্চিত্রে।