Home ফিরে দেখা আর্ট ফিল্মবোদ্ধাদের কাছে উত্তমকুমারের জনপ্রিয়তা ছিল অসহ্য !
কমললতা

মাধবী কাননে নির্মল বসন্ত !

ও মন তারই হাতের একতারা যে আমি সে বাজালে বাজি আবার- সে থামালে থামি কমললতাকে গহর গোঁসাই সরাসরি কোনোদিন প্রেম প্রস্তাব দিতে পারেননি। তবু...
রবি

শুধু ট্রিবিউট নয় ! একটু অন্য স্বাদে ছবিতে রবি

'রবি ঘোষ' এই নামটা শুনলেই গুপী গাইন বাঘা বাইন চলচ্চিত্রের বাঘা, গল্প হলেও সত্যির সেই চাকরের চরিত্রটিকে সবার আগে মনে পরে যায়। প্রবাদ প্রতিম...
সুধা

মনে আছে “বা” কে?

সুধা শিবপুরি (14 July 1937 – 20 May 2015) । স্নেহময়ী মাতৃমূর্তি। দিদা ঠাকুমা প্রপিতামহী প্রমাতামহী সবার কাছেই যিনি ছিলেন আপন। বাড়ির বট গাছ।...

আর্ট ফিল্মবোদ্ধাদের কাছে উত্তমকুমারের জনপ্রিয়তা ছিল অসহ্য !

চল্লিশ বছর হয়ে গেল তিনি নেই কিন্তু আজও তিনি আছেন। তাঁর জনপ্রিয়তা এতটুকু কমেনি। আজও পূরণ হয়নি তাঁর ছেড়ে যাওয়া সিংহাসন। তিনি উত্তম কুমার।উত্তম কুমারকে নিয়ে বিশ্লেষণ করলেন শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

উত্তম কুমার মানেই চিত্তবিনোদনকারী ছবি। তিনি আবার আর্ট ফিল্মে চলেন নাকি। এমনও বলেছেন এক পরিচালক “উত্তম ঠোঁটে লিপস্টিক দেওয়া নায়ক, আবার ছবিতে চলবেনা।’ অথচ উক্ত পরিচালকের শুরুর ছবিটাই ছিল উত্তম অভিনীত।শর্মিলা ঠাকুর বলে বসলেন “মাণিকদার ছবিতে কাজ করে উত্তম কুমার নিজের অভিনয় ধারা পাল্টাতে শিখলেন। মাণিকদা উত্তম কুমারকে অভিনয় করা শেখালো।”শিল্পী, পরিচালকদের চেয়ে আর্ট ফিল্ম বোদ্ধাদের কাছে যারা বিশেষত সত্যজিৎ মৃণাল ছবির ফ্যান তাঁরা কোনদিনই উত্তমের জনপ্রিয়তা মেনে নিতে পারেননি। আজও পারেননা ।তাঁদের সেই ধারা বজায় রেখে চলেছে আজও কিছু ফিল্মবোদ্ধা।

ফিল্মবোদ্ধা কথাটা কি আত্মপ্রচার? ফিল্মলাভার নন কেন তাঁরা?

তাঁদের কাছে সত্যজিতের ছবি নিঁখুত উত্তমের কাজ। ভাগ্যিস করলেন উত্তম। নয়তো সুচিত্রা সেনের মতো সত্যজিৎ র ছবি না করায় অভিনয় পারেননা শুনতে হত। ‘দীপ জ্বেলে যাই’ এর শেষ দৃশ্যের রাধা হতে জানিনা আর কোন অভিনেত্রী পারতেন। ওয়াহিদা রহমান স্বীকার করেছেন ‘দশবার দেখেও সুচিত্রা সেনের মতো পারিনি করতে হিন্দিতে।’তাহলে ‘খোকাবাবুর প্রত্যাবর্তন’ থেকে কৃষেন্দু হয়ে অগ্নীশ্বর এই সফরে উত্তমের কি নিঁখুত অভিনয় নেই? নাকি উত্তম সাফল্য সহ্য না করতে পেরে এই বিষোদগার। মাণিকবাবুই যদি উত্তমকে এক্টিং শেখাবেন তাহলে অজয় কর,অরবিন্দ মুখোপাধ্যায় রা কি করলেন?কেন এই বিভাজন? একজনকে তুলতে অপরকে ছোটো করা? উত্তম কুমার একসময় অবধি আর্ট ফিল্মে বিশ্বাসী ছিলেননা। পার্থপ্রতিম চৌধুরীর ‘যদু বংশ’ করতে গিয়ে নিজের মত পাল্টান। যাতে অবদান ছিল সুপ্রিয়া দেবীর। নন-মেক আপ লুকে ‘যদু বংশ’ তে প্রথম অভিনয় করেন উত্তম।নায়ক রোম্যান্টিক সত্ত্বায় আঘাত পড়বে ভেবেই করতেন নাহ। কিন্তু যখন উত্তম সুচিত্রা জুটির রঙ ফিকে হয়ে আসতে থাকল, বয়স বাড়তে লাগল বয়স পঞ্চাশ পেরনোর আগেই নিজেকে চেঞ্জ করেন উত্তম। এই সাহসিকতা অধ্যাবসায় উত্তম কুমারের কৃত্বিত্ব। যদিও আগে ভূতনাথের চরিত্র করে আইকনিক উত্তম।

সত্যজিৎ উত্তমকে অভিনয় শেখাবার অনেক আগেই উত্তম কুমার ‘সাহেব বিবি গোলাম’ , ‘হারানো সুর’, ‘মরুতীর্থ হিংলাজ’,বিচারক’ করে ফেলেছেন। এই মূলধারার নায়ক নায়িকাদের অভিনয় নিয়ে আঁতেল সমাজের বিদ্রুপ এগুলো কিন্তু মিডিয়া মেড , আঁতেল দর্শক দের রচিত, সত্যজিৎ ফ্যানদের সৃষ্ট।

একটা গল্প বললেই বুঝতে পারবেন সত্যজিৎ রায় এ হেন অভদ্র লোক ছিলেন নাহ। আর এই গল্পর থেকেই বুঝবেন সত্যজিৎ ছাড়াই উত্তম কুমার সুপারস্টার হন। তখন সত্যজিৎ রায় “নায়ক” ছবির চিত্রনাট্য লিখছিলেন দার্জিলিং এ বসে। বন্ধু তপন সিনহাকে একদিন জিজ্ঞেস করলেন “কাকে নেওয়া যায় বলুন তো? আমার এই ছবিতে? তপন সিনহা বললেন “আপনি নিশ্চয়ই কাউকে ভেবেছেন? সত্যজিৎ রায় বললেন “উত্তম”।

তপন সিনহা বললেন “ও ছাড়া কেউ নেই যে এই চরিত্রের ধারে কাছে আসতে পারে। একদম পারফেক্ট চয়েস।”

MUST READ

১০০ দিনে কথনীয় ‘কন্ঠ’

একশো দিন একশোরও বেশী কন্ঠে উচ্চারিত আজ শিবপ্রসাদ-নন্দিতা জুটির 'কন্ঠ' ছবিটি। উইনডোজ প্রযোজিত 'কন্ঠ' ছবিটি একশো দিন পার করল।'কন্ঠ' ছবির অনুপ্রেরণা একজন ক্যান্সার রোগ...

“ঋতুর মা থেকে শিবুর মায়ের চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে আমি ধন্য।” – অনসূয়া মজুমদার

'মহাপৃথিবী, 'তাহাদের কথা','সম্প্রদান','দেবাঞ্জলী','মুখার্জীদার বউ','গোত্র' ... এক বিশাল সফরের নায়িকা অভিনেত্রী অনসূয়া মজুমদার -এর মুখোমুখি। গুলগাল.কম কে অনসূয়া মজুমদার জানালেন তাঁর রিল টু রিয়েল লাইফের...

রজনীগন্ধা ঝরে গেলেন !

চলে গেলেন বিদ্যা সিনহা। যিনি আলোচনা প্রচারের বাইরে ছিলেন। বলিউড মানে শুধু বিদ্যা বালান নন। তাঁর আগেও সত্তর দশকে দমকা মুক্ত হাওয়ার মতো মধ্যবিত্তর...

পুজারিনীর এই মিমিক্রি না দেখলে কিন্তু মিস করবেন !

পোস্টমাস্টার থেকে বড় পর্দায় উঠে আসা পূজারিণী কিন্তু এখন অনেক পরিণত , হাতে রয়েছে অনেক গুলো ছবি সাথে কিছু ওয়েব এর কাজ । সদ্য...