সিনেমা বোদ্ধার রিভিউ নয় ! এক এস আর কে ফ্যানের প্রতিক্রিয়া মাত্র

না, এটা গতানুগতিক সিনেমা রিভিউ না। একজন শাহরুখ ফ্যান এর প্রতিক্রিয়া মাত্র। শেষ তিন-চার বছর দেখলে শাহরুখ খান এর শেষ সুপারহিট মুভি চেন্নাই এক্সপ্রেস । এরপর ফ্যান এ ভালো অভিনয় করে গেলেও উল্লেখযোগ্য কোনো সিনেমা দর্শক দের উপহার দিতে পারেননি বলিউডের এই তারকা। পরিচালক আনন্দ এল রাই ও অভিনয়ে শাহরুখ খান, ছবির পোস্টার রিলিজ এর পর থেকেই সিনেমাটি নিয়ে একটা আলাদা হাইপ সৃষ্টি হয়। তনু ওয়েডস মনু, রান্ঝনা মুভি খ্যাত এই পরিচালক এর কাছ থেকে দর্শক কিছু নতুন আশা করেছিল, শাহরুখ এর জন্য আবার ঘুরে দাঁড়ানোর মত মুভি ছিল এটা।  শাহরুখ খান - অনুষ্কা এর কেমিস্ট্রিবস্তুত পরিচালক – অভিনেতা জুটির নাম থেকেই মানুষের এক্সপেক্টেশন লেভেল অনেক উপরে চলে যায়। মুভির ট্রেলার ও ভালো রেসপন্স পায়, শাহরুখ এর পাশাপাশি অনুষ্কা শর্মা এর অভিনয় দেখার মত হবে ভাবা হয়। এবার মুভি দেখা নিয়ে কিছু ব্যাক্তিগত মতামত শেয়ার করবো। মুভি দেখতে যাওয়ার সকাল থেকেই জিরো এর নেগেটিভ রিভিউ আসতে থাকে। সব বাদ দিয়ে অবশেষে জিরো দেখা শুরু করলাম প্রেক্ষাগৃহে। প্রথম থেকেই সিনেমাটা দর্শক দের বিরক্ত করবে না। প্ৰথমে ভালোই লাগবে। অনুষ্কা শর্মা এর সাবলীল অভিনয়, শাহরুখ খানঅনুষ্কা এর কেমিস্ট্রি দেখার মত। তবুও কিছু কিছু প্রশ্ন মনে থেকে যায়। বলিউডি রোমান্টিক জোনার এ এরকম একটু থাকেই, অতএব তা অগ্রাহ্য করাই যায়।জিরো সিনেমা রিভিউ
কিন্ত বাদ সাধে দ্বিতীয় অর্ধ। অত্যন্ত অপ্রাসঙ্গিক, বোরিং ও স্লো স্টার্ট করে ইন্টারভাল এর পরের টুকু। ক্যাটরিনা কাইফ এর সাথে শাহরুখ এর কানেকশন বড্ড আজগুবি ঠেকে। কোনো কম্পিটিশন ছাড়াই শাহরুখ কিভাবে ডান্স শো জিতে গেল তা এখনো ধোঁয়াশা। ক্যাটরিনা এর অভিনয়ে বলতে গেলে তার হিন্দি বুঝতে অসুবিধা হবে না দর্শকদের। হুসন পরছম গানটা ছাড়া ক্যাটের অভিনয় চোখে পড়ে না। প্রথম অর্ধটা দর্শকদের আটকে রাখতে পারলেও সেকেন্ড হাফে এসে সিনেমা আর সিনেমা থাকে না। জিরো সিনেমা রিভিউশেষের 15 মিনিটে এসে একটা দারুন ক্লাইম্যাক্স উপহার দিতে চেয়েছিলেন পরিচালক। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। সিনেমাটির প্রথম অর্ধ অতটা ভালো না যে দ্বিতীয় অর্ধের ক্ষত ঢেকে দেবে। অনেক অযুক্তিক সিন আছে ছবিতে। সেগুলো বাদ দিলেও ভালো হত বোধহয়। সিনেমাটির প্রাপ্তি অনুষ্কা এর প্রতিবন্ধী বৈজ্ঞানিক এর ভূমিকায় অভিনয়। সব মিলিয়ে দর্শক আবারো আশা হত হলো। দোষটা পরিচালক কেই দেওয়া যায়। ক্যাটরিনা বাদে বাকি সবার অভিনয় ভালো লেগেছে, যদিও সবাইকে সুযোগ দেওয়া হয়নি। সব থেকে বাজে লাগলো প্রতি বার মনে হয়েছে জোর করে সুপারস্টার ক্যামিও গুলো আনা হয়েছে। সিনেমা টা প্রচুর নেগেটিভ রেসপন্স পেয়ে আসছে, তবে সেই সব রেটিং ও কতটা যুক্তিযুক্ত জানা নেই। ডিরেক্টর শুধু প্রথম অর্ধটুকু রিলিজ করলে পারতেন।
আমার রেটিং – 6
লেখক- সূরজ ঘোষ