তিন কাপ চা-এ শুধু ভালোলাগা চাই !

বাঙালির জীবনে চা একটা ইমোশান। সকালে ঘুম থেকে উঠার পরে বারান্দাতে দাঁড়িয়ে খাওয়া চা হতে পারে, হতে পারে বন্ধুর বাড়িতে বসে খাওয়া গল্প জমানো চা, বা নিদেনপক্ষে পাড়ার মোড়ে বা অফিসের পাশের কোনো চায়ের দোকানে খাওয়া মাটির ভাঁড়ে চা… প্রত্যেক চুমুকে একটা করে নতুন গল্প লেখা হয়ে যায়। জড়িয়ে পড়ে মানুষ, জড়িয়ে ধরে মানুষ, কিংবা হয়তো ছেড়ে চলে যায়…এই সব সাত পাঁচ ভাবতে ভাবতে এগোচ্ছিল ট্রেলার, হঠাৎই শুনতে পাই ডায়ালগ,’ কিছুই হারায় না,এক হাত থেকে অন্য হাতে বদল হয় কেবল!’

ঠিক এইখানে গিয়েই ধাক্কাটা লাগল, হইচই-এর নতুন মুভি তিন কাপ চা-এর ট্রেলার যেন জীবনের কথা বলে দিল! তিনটে গল্প, তিন জন ডিরেক্টর, দেবালয় ভট্টাচার্য, মৈনাক ভৌমিক আর পরিক্ষিত বসু…গল্পের ভাঁজে সৌরভ, সায়নী, অপরাজিতা, সম্পুর্ণা, রুপঙ্কর, রাজদীপ আর অমৃতার মতো এক জাঁক কলা কুশলীরা; প্রধান চরিত্র কিন্তু একটাই, চা। শুনতে একটু অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। তিনটে চায়ের কাপ ঘিরে বাঁধা পড়ে আছে অনেক গুলো জীবন! আর তাদেরই গল্প নিয়ে এবার দর্শকের কাছে হইচই। সংসার, প্রেম, চন্দ্রাহত উন্মাদনা, ট্রেলার দেখে যা বোঝা গেল এই সমস্ত কিছু নিয়ে বেশ একটা ঠাসা প্যাকেজ তৈরী করেছে হইচই। আর যেটা সব ট্রেলারটা জুড়ে বেশ তাড়িয়ে বেড়াবে সেটা একটা খিদে না মেটা রহস্য! চোখ ফেরানো যাবে না কিছুতেই। এক ঝাঁক শক্তিশালী অভিনেতাকে একসঙ্গে দেখার সুযোগও বটে! আর তার মধ্যে আবার বেশ অনেকদিন পরে ফিরছেন সম্পুর্ণা লাহিড়ী, তার ফ্যানেদের জন্য সুসংবাদ নিশ্চয়ই। রুপঙ্কর বাগচীকে অভিনয় করতে দেখার একটা সুযোগ তার সাথে রইল। জাপানি টয়ের বিশাল সাফল্যের পরে একেবারে একটা অন্যরকম চরিত্রে কেমন করবেন রাজদীপ; সেটা নিয়েও প্রত্যাশা থেকে যায়। সব মিলিয়ে অপেক্ষা এখন একদম পারফেক্ট তিন কাপ চা-এর, অতি সন্ন্যাসীতে চিনি বেশী হয়ে যাওয়ার সম্ভবনাও কম নয় যদিও। চায়ের কাপে মুখ ডুবিয়ে কীসের আস্বাদ পাবে বাঙালি দর্শক? হইচই কী জমিয়ে দেবে তিন কাপ চায়ের আড্ডা? প্রশ্ন অনেক গুলোই, যদিও পরিবেশনের আগে এক চামচ চাখনা ট্রেলার কিন্তু বলে দিচ্ছে, এ চায়ের স্বাদ ভোলবার নয়!