Home ছোট গল্প 'শেষের কবিতা'-র নয়া দলিল !
Romen Roy Chowdhury

জননী’র বড়খোকা, মেজখোকা ও সেজখোকা তিনজনেই এখন চিরতরে মায়ের কাছে ..

সুপ্রিয়া দেবীও প্রয়াত। জননীর তিন সিরিয়ালের ছেলেও প্রয়াত। জননী তে বড় খোকা হন রমেন রায়চৌধুরী, মেজ পার্থ মুখোপাধ্যায়, সেজ শিলাদিত্য পত্রনবীশ। এঁরা সবাই আজ...
আশিকির

আশিকি সিনেমার পিছনে কিছু অজানা কথা !

১. মহেশ ভাট ইন্দ্রানী রায়ের আর্টিকেল খুব পছন্দ করতেন৷ একদিন ইন্দ্রানী রায়ের বাড়িতে গেলে তার ছেলে দেখে পছন্দ হয় এবং আশিকির জন্য অফার দেন। ২....
একই অঙ্গে এত রূপ 1965

হারানো ছবির গল্প !

পরিচালক হরিসাধন দাশগুপ্তর বাংলা ছবিতে অবদান একদম অনালোচিত। চলচ্চিত্রকার হিসেবে তাঁর সবচেয়ে আলোচিত ছবি সুচিত্রা - উত্তম অভিনীত 'কমললতা'। খুবই গুণী মানুষ। কিন্তু মেঘে...

‘শেষের কবিতা’-র নয়া দলিল !

প্রেমপত্র লিখতে গেলেই কপোত-কপোতী দের মনে পড়ে ‘শেষের কবিতা’ র কথা …তখনও আজও।হ্যাঁ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘শেষের কবিতা’। অনেকসময় সাহিত্যের ঘটনা বাস্তব জীবনের সঙ্গে মিলে যায়। যদি আজ থেকে ২৫ বছর আগে ঘটে যায় এমন রবি কাহিনী বাস্তবে? এই প্রেক্ষাপটের উপর পরিচালক অনঞ্জন মজুমদার একটি ছোট ছবি তৈরি করেছেন। ২৫ বছর বাদে ‘শেষের কবিতা’র চরিত্রগুলোর কিছু পরিবর্তন পরিবর্ধন হয়েছে। তাঁদের পরবর্তী প্রজন্ম এসেছে। কি ভাবে ফিরে আসছে পুরনো প্রেম নতুন প্রেমের হাত ধরে? বর্তমান কি ভাবে মেনে নিচ্ছে, নতুন আঙ্গিক দিচ্ছে প্রাক্তন প্রেমের?

ছবির নাম ‘অবশেষের গল্প’। ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে ছোটো ছবিটি। রবীন্দ্র সাহিত্যকে (শেষের কবিতা ) নতুন আঙ্গিকে বেশ নতুন রূপ দিয়েছেন অনঞ্জন। ছবির শুরুতেই জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ির ফটক দেখিয়ে শুরু বেশ রাবেন্দ্রিক ভাব নতুন মোড়কে আনে। ‘শেষের কবিতা’র চরিত্ররা তো চিরবিখ্যাত।অমিত রায়, লাবন্য ,কেটি বা কেতকী ,শোভনলাল অনাঞ্জনের ‘অবশেষের গল্প’ ছবিতে অমিত রায় নেই। কেতকী ও লাবন্য বহু যুগ পর বেয়ান সম্পর্কে মুখোমুখি।কি ভাবে করবে তাঁরা এই সম্পর্কের নতুন বিশ্লেষন? শোভনলাল কি মেনে নেবে লাবন্যর অমিত কে?

ছোটো ছবি এবার দেখুন বাকিটা।অভিনয়ে তিন জনেই দারুন অভিনেতা অভিনেত্রী। বাদশা মৈত্র,অঞ্জনা বসু এবং বিদীপ্তা চক্রবর্তী। বিদীপ্তা প্রথম এপিয়্যারেন্সেই বুঝিয়ে দিলেন তাঁর জাত। অসম্ভব ভালো অভিনয় ও ক্লাসি সাজ বিদীপ্তার। এক ঝাঁক রোম্যান্টিসিজমে আজও অঞ্জনা বসু। অঞ্জনা কেও অসম্ভব সুন্দর দেখতে লেগেছে তেমনি সুন্দর বোঝাপড়ার অভিনয়।বাদশা মৈত্র ইতিহাসবিদ রূপে লুকে অভিনয়ে অসাধারন। নবাগত দের অভিনয়ে আরও তালিম দরকার।বিশেষ করে নবাগতা মেয়েটি অভিনয়ে বড়ই কাঁচা,ডায়লগ ডেলিভারি দুর্বল। নবাগত দের দিয়েই ছবি শুরু করছেন পরিচালক।অনেকটা জুড়ে তারা তাই দর্শক যাতে বোর ফিল না করে তাই নবাগতদের প্রতি আরো যত্নশীল হওয়া প্রয়োজন ছিল। কিন্তু ছবিটাকে একরাশ মন কেমন ভালোবাসা মন্দবাসার গল্পে পার করে দেয় বাদশা,অঞ্জনা ও বিদীপ্তার অভিনয়। ‘কখনও কাকভোরে’ গানটি বেশ শ্রুতিমধুর।অনঞ্জন মজুমদার কে ফিচার ফিল্ম এবার যাতে বানাতে পারেন তার জন্য শুভেচ্ছা নিরন্তর।

Watch Movie Here

লেখক শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

MUST READ

দীর্ঘ অন্তরালের পর ফিরছেন ইতিহাস কে সঙ্গে নিয়ে

দীর্ঘ অন্তরালের পর আবার রুপোলী পর্দায় ফিরছেন ডিস্কো ডান্সার।ছবির পরিচালক মানস মুকুল পাল।স্বাধীনতা সংগ্রাম নিয়ে গল্প।আমাদের চেনা ইতিহাসের বিপ্লবীর অচেনা গল্প বলবেন মানস ও...

লক্ষ্মী এল ঘরে, মা হলেন কনীনিকা

তুমি আমার মা , আমি তোমার মেয়ে ... কন্যা সন্তানের জননী হলেন কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার সকালে কন্যা সন্তানের মা হলেন কনিনীকা। নতুন সদস্য এল...

সংসারের ব্যাটন ঠিক কার হাতে ? এখনো ধন্দে বাঙালী

বাংলা চলচ্চিত্রে বিবাহ সম্পর্কিত ছবির সংখ্যা নেহাতই কম নয়,যা বার বার আমাদের দেখিয়েছে তার সুবিধা সাথে তার সাইড এফেক্টস । কিন্তু তাতেও কি মানুষের...

চিরবিদায় নাট্যকার অভিনেতা সমাজকর্মী গিরিশ কারনাড !

প্রয়াত বিখ্যাত নাট্যকর্মী, চলচ্চিত্র অভিনেতা তথা সমাজকর্মী গিরিশ কারনাড। সোমবার সকালে বেঙ্গালুরুতে তাঁর বসতবাড়িতে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। ।...