সাধারণ গল্প অসাধারণ মোড়কে – আসছে মুখার্জী দার বৌ !

মুখার্জী

পারমিতার একদিন মনে আছে? সেই যে পারমিতা আর তার শ্বাশুড়ির মধ্যেকার অদ্ভুত সম্পর্কের সমিকরণের উপর তৈরী হওয়া এক কালজয়ী সিনেমা…তারপর বেশ অনেক গুলো বছর কেটে গেছে, শ্বাশুড়ি-বৌমার সম্পর্কের সমিকরণ নিয়েও যে ছবি তৈরী করা যায়, টালিগঞ্জ যেন ভুলে গিয়েছিল, মনে করিয়ে দিতে, বেশ অনেকখানি নাড়িয়ে দিতে এই এত দিন পর আসছে মুখার্জী দার বৌ, আর এবারেও উদ্যোগে একজন মহিলা ডিরেক্টর, না, অপর্ণা সেন নয়, পৃথা চক্রবর্তীউইনডোজ প্রোডাকশনের এই ছবিটা বেশ আলোড়ন তুলেছে সেই এর প্রথম টিজার বেরোনোর পর থেকেই, বেশ অভিনব একটা অডিয়েন্স এনগেজিং পথে ছবিটির প্রচার করা হয়েছে, আর অনেকটা অপেক্ষার পর অবশেষে এসে পৌছেছে ছবির ট্রেলর। মূল চরিত্রে অনসুয়া মজুমদার, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, কনিনিকা, বিশ্বনাথ, আর অপরাজিতা আঢ্য। ছবির ট্রেলর দেখলেই বোঝা যায়, ভীষণ মধ্যবিত্ত একটা সেটিং-এর মধ্যে বেশ জাগতিক একটা গল্প নিয়ে ছবিটার মূল গল্প ঘুরে চলছে। মুখার্জি দার বৌ ট্রেলার রিভিউএই ছবি মনে করিয়ে দেবে অনেক কিছু, এই ছবি বাঙালি পুরুষতান্ত্রিক সমাজের মুখোশে ট্রেলরেই যে ভাবে টান মেরেছে, তাতে যদি ছবি রিলিজের পর আমাদের মধ্যবিত্ত মানসিকতার খুব কদর্য রূপটা হঠাৎই ভরা রাস্তাতে চলে আসে, তাতে কিছু মাত্র অবাক হওয়ার থাকবে না! শ্বাশুড়ি-বৌমার সম্পর্কের টানা পোড়েন, হাজার অশান্তি আর ঝগড়ার পরেও যে তাদের সামাজিক পরিচয় সব সময়ই কোনো এক বিশেষ পদবীধারির বৌ, কোনো এক সন্তানের মা ছাড়া বেশী কিছুই নয়, এই ট্রেলর সে কথা মনে করিয়ে দেয়। ট্রেলরে বেশ অবাক করলেন অপরাজিতা, সাপোর্টিং চরিত্রে তার অভিনয় মন কেড়ে নিয়েছে। প্রতিদিনের বিবাহিত জীবনে প্রতারণা একজন সাধারণ সংসার কেন্দ্রিক মেয়েকে ঠিক কোন জায়গাতে নিয়ে গিয়ে দাঁড় করাতে পারে, সে কথা বলে দিচ্ছে তার চোখ। বিশ্বনাথকে যতটুকু দেখা যাচ্ছে, তাতে বার বার করে মনে পড়ে যায়, তারই অভিনিত আর এক চরিত্রের কথা, যে চরিত্র দিয়ে তার কেরিয়ারের জয় যাত্রা শুরু বলা যায় আর কী। ঠিক ধরেছেন, সুবর্ণলতা ধারাবাহিকের প্রবোধ চরিত্রের কথাই বলছি! দুজন একা মেয়ের গল্পই বলবে মুখার্জী দার বৌ।মুখার্জী দার ভুমিকাতে তার চরিত্র বোধহয় এটাও দেখিয়ে দেবে খুব সহজেই, যে সেই সুবর্ণলতার সময়ই হোক আর আজকের একবিংশ শতাব্দী, নারী চীরকাল-ই সামাজিক অবজ্ঞার শিকার, সে তখনো একা ছিল, সে আজো একা। আর এরকম দুজন একা মেয়ের গল্পই বলবে মুখার্জী দার বৌ। অদিতির চরিত্রে কনিনিকা যে বেশ মানানসই তা অভিনয় দিয়ে ট্রেলরেই প্রমাণ করে দিয়েছেন অভিনেত্রী। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের চরিত্র এই ছবিতে ঐ কেকের মাথাতে চেরিটার মতো ইমপর্টেন্ট। তাকে ছাড়া যেন অসম্পূর্ণ থেকে যায়… উইনডোজের আর এক ছবি রামধনুর রচনা ব্যানার্জির চরিত্রটা মনে পড়ে যাচ্ছিল বার বার, একটু যেন রদবদল হয়েছে, গল্পের খাতিরে। এবং সেই চরিত্রে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত নিজের মতো করে ভালোই। অনসুয়া মজুমদার কে এত দৃঢ় চরিত্রে বেশ অনেকদিন পর দেখতে পাওয়া যাবে ভেবেও বেশ ভালোলাগা ছড়িয়ে আছে দর্শকের মনে। তবে ট্রেলরেই তো শেষ কথা বলা যায় না, শাশুড়ি-বৌমার সম্পর্কের উপর দাঁড়িয়ে থাকা এই ছবি কী তবে আরো একটা পারমিতার একদিন-এর মতো ইতিহাস তৈরী করতে চলেছে? না কী, মুখার্জী দার বৌ সেট করবে নতুন ট্রেন্ড? সব প্রশ্ন এখন প্রশ্নের জায়গাতেই, জবার দেবে হল রিলিজ।