ভাবনায় ঋতুপর্ণ হলেও, ছবিটা কৌশিকের-ই !

রাজনীতি

তুপর্ণ ঘোষ যদি জেষ্ঠপুত্র ছবিটা নিজেই তৈরী করতেন তবে কেমন হতো তা এইসময় বসে ভাবা বেশ শক্ত! সদ্য রিলিজ হওয়া ট্রেলর দেখে মনে হচ্ছিল, মূল ভাবনা ঋতু দার হলেও, ছবিটা ভীষণ ভাবেই কৌশিকের। ছবিতে মূল চরিত্রে যারা অভিনয় করছেন, এক ঋত্বিক বাদ দিয়ে ঋতুর সঙ্গে কাজ করার প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা সকলের আছে। তবু যতক্ষণ ট্রেলর চলে, বার বার চোখ আটকে যায় সুদীপ্তা চক্রবর্তীকে দেখে। সুরিন্দর ফিল্মসের এই নতুন ছবির মূল প্রেক্ষাপট ট্রেলার দেখে যা বোঝা যায়, তা হলো রাজনীতি এবং সম্পর্ক; আরো একটু পরিষ্কার করে বলা যায়, সম্পর্কের রাজনীতি! প্রখ্যাত বড় ভাই-এর ছোটখাটো অনুজ, তাদের সম্পর্কের অদ্ভুত বুনন, একটা অদ্ভুত বুঝতে না পারার দ্বন্দ্ব, এই সব কিছু খুব সহজ করে ফুটে উঠেছে ছবির ট্রেলরে। গ্রামের বাড়ির বাসিন্দা এই কনিষ্ঠ তাদের বাবার মৃত্যুর পরে সরাসরি গিয়ে দাঁড়িয়ে পড়েছে প্রখ্যাত অগ্রজের সামনে, কী হয় তারপর, কেমন করে বদলে যায় প্রেক্ষাপট, এই সব কিছু জানতে হলে দেখে ফেলতে হবে জেষ্ঠপুত্র। অভিনয়ে প্রসেনজিত চ্যাটার্জি, ঋত্বিক চক্রবর্তী, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, গার্গী রায় চৌধুরী। মানসিক ভারসাম্যহীন এক চরিত্রে সুদীপ্তার অভিনয় ট্রেলরে যেটুকু দেখা যায়, তাতে আর একটা বিষয় নিশ্চিত, জেষ্ঠপুত্র বাঙালির কাছে ঋতুপর্ণ ঘোষকে আরো একবার ফিরিয়ে দিক বা না দিক, সুদীপ্তা চক্রবর্তীর একটা সেরা অভিনয় আবারো উপহার দিয়ে যাবে। ট্রেলর যেটুকু বলে দেয় তাতে এটা বলা যায়, প্রসেনজিত, ঋত্বিক, গার্গী…এরা নিজেদের মতোন করে ভালো, তবে পুরো ছবি না দেখে এক সঙ্গে প্রত্যাশায় বোঝাই হওয়া ঠিক নয়, ছবি কেমন হলো, ঋতুপর্ণর সেই অদ্ভুত অবাক করা এসেন্সটা ফিরত দিতে পারল কীনা জেষ্ঠপুত্র, এই সব কিছু নিশ্চিত হয়ে যাবে ছবি রিলিজের পর, এখন শুধু ঋতুদাকে সিনেমা হলে গিয়ে ফিরে পাওয়ার একটা আশা আর অদম্য অপেক্ষা থেকে যাক।