রহস্যজনক ভাবে একমাস ধরে বন্ধ পড়ে থাকা ঘরে ঢোকে পার্নো! তারপর?

‘শ্রীমতী ভয়ংকরী’, ‘ল্যাবরেটরি’, ‘বুমেরাং’ এর পর আসতে চলেছে শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের ওয়েব প্ল্যাটফর্ম হইচই অরিজিনালসের নতুন ছবি ‘চুপকথা’। হইচই অরিজিনালসেরআগের ছবিগুলি মূলত থ্রিলার, রোম্যান্স, কমেডির আবহে তৈরি হলেও এই ছবিটি ভৌতিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত। ‘চুপকথা’য় ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টের মুখ্য ভূমিকায় দেখা যাবে পার্নো মিত্রকে। ছবিতে তাঁর চরিত্রের নাম শিবাঙ্গি, রহস্য ও রোমাঞ্চ যাঁর প্রাত্যহিক জীবনের অঙ্গ।এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় দেখা যাবে মৈনাক ব্যানার্জি, কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় ও শতাফ ফিগারকে। ছবির বেশীরভাগ অংশেরই শুটিং হয়েছে কার্শিয়াং-এ। ওয়েব ফিল্মটির চিত্রনাট্য লিখেছেন রিতর্ষি দত্ত আরপরিচালনার দায়িত্বে ঋক বসু।

প্রসঙ্গত ‘চুপকথা’র মাধ্যমেই বাংলা চলচ্চিত্র জগতে পা রাখতে চলেছে ঋকের প্রযোজনা সংস্থা সোরিয়াল এন্টারটেনমেন্ট। ছবির গল্প বোনা হয়েছে একটি বাচ্চা মেয়ের অন্তর্ধান রহস্যকে কেন্দ্র করে। সেখানে রহস্য উদঘাটনের সূত্র একটি মোবাইল ফোন ও একটি অদ্ভুত বাড়ি। বাচ্চাটি হারিয়ে যাওয়ায় তদন্তে নামেশিবাঙ্গি। কলকাতা পুলিশের তদারকিতে ২৮ বছরের তদন্তকারী সাংবাদিক শিবাঙ্গি (পার্নো মিত্র) এমন একটি বাড়িতে পৌঁছে যায়, যেটি রহস্যজনকভাবে একমাস ধরে বন্ধ হয়ে রয়েছে।

তদন্তের শেষে সেখানে সে খুঁজে পায় সিমকার্ড ছাড়াএকটি নোকিয়া ৫১১০ ফোন এবংতার হাতে আসে কয়েকটি ছবি। সেখান থেকেই গল্পে আসতে শুরু করে একের পর এক টুইস্ট। হইচই প্ল্যাটফর্মে আগামী ১৮ই আগস্ট মুক্তি পাচ্ছে ‘চুপকথা’। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,হইচইতে এটাই পার্নোর প্রথম কাজ।প্রথম থেকেই বিভিন্ন অভিনব কন্টেন্টনিয়ে দর্শকের কাছে এসেছে হইচই। আশা করা যায় ‘চুপকথা’-ও তার ব্যতিক্রম হবে না।