দেবের এই সিদ্ধান্ত চমকে দিল অনেককেই !

হইচই আনলিমিটেড

২০০৬ থেকে ২০১৭ অবধি অভিনেতা দেব’র ক্যারিয়ার নিয়ে যদি ছানবিন করা হয় তাহলে খুব স্বাভাবিকভাবেই একটা জিনিস চোখে পড়বে। হাতে গোনা কয়েকটি ছবি বাদে দেব’র প্রতিটি সিনেমাই মুখিয়ে ছিলো হাস্যরসের দিকে। ‘পাগলু’, ‘হিরোগিরি’ প্রভৃতি ছিলো তার আদর্শ উদাহরণ। এতোদিনে যদিও ‘চাঁদের পাহাড়’ আর ‘আরশিনগর’র মতো ছবি গুলিও দেব’র সাথে জুড়ে গেছিলো। তবে মোটের ওপর যোগফলে এগিয়ে ছিলো ফ্যামিলি ড্রামা গুলিই।

২০১৭’র মাঝের দিকে একটি ছোট্ট ইনিসিয়েটিভ দেব’র পালা বদল করে। আর সেটি ছিলো ‘চ্যাম্প’। হাস্যরসের মায়া কাটিয়ে ব্র্যান্ড দেব অগ্রসর হয়েছিলো সিরিয়াস কন্টেন্টের দিকে। ব্যাপারটা অনেকটা ঝুঁকির মধ্যেই ছিলো। কিন্তু শেষমেষ বক্স অফিস যখন মুখ খুললো তখন অপরপ্রান্তে ব্র্যান্ড দেব’র প্রভাবে মুখে কুলুপ পড়েছিলো টলিপাড়ার অন্যান্য কলাকুশলীদের। এরপর যথাক্রমে ‘ককপিট’ আর ‘কবীর’র এই সিরিয়াসনেসে অন্য মাত্রা যোগ করে। অনেকে হয়তো ভেবেই নিয়েছিলো যে দেব আর হাস্যরসে ফিরছেন না। এই ভাবনা যদিও অপ্রাসঙ্গিক নয় তবে এটাও ভুলে গেলে চলবে না যে ব্র্যান্ড দেব মানেই তাতে চমক থাকবেই। বাঙালির পাতে ‘কবীর’র এখনো উত্তপ্ত। আর ‘চ্যাম্প’ থেকে ‘কবীর’ অবধি যে সিরিয়াস কন্টেন্টের ডোপিং বাঙালির মনে গেঁথে দেওয়া হয়েছে তা থেকে কি বেরিয়ে আসা কি আদেও সহজ হবে ?

উত্তর মিললো দেব’র থেকেই। হুম! অবশ্যই প্রযোজক দেব। দেব’র পরবর্তী প্রযোজিত ছবি ‘হইচই আনলিমিটেড’। নাম শুনেই তাতে সন্ধান মিলছে উদ্দাম হাস্যরসের। ‘হইচই আনলিমিটেড’র যে ফার্স্টলুক বেরিয়েছে সেটাও বেশ কৌতুক যুক্ত। অর্থাৎ এটা পরিস্কার বোঝা যাচ্ছে যে আবারও হাস্যরসাত্মক হাতিয়ার নিয়ে নতুন মাইলস্টোন পার করতে চলেছেন দেব। তবে কি ‘হইচই আনলিমিটে’র অন্তরালে বাঙালি বঞ্চিত থাকবে সিরিয়াস কন্টেন্টের থেকে? দেব’র কথায় তা একেবারেই না। হাস্যরসের আড়ালে সিরিয়াস কন্টেন্টের বহিঃপ্রকাশ’ই হচ্ছে ‘হইচই আনলিমিটেড’।

এবার দেখা যাক কে কে থাকছেন ছবিটিতে। ‘কবীর’র পর আরও একবার ফিরছে দেব-অনিকেত হিট জুটি। আর রুক্মিনী? এই প্রশ্নটি উঠে আসা ভীষণ স্বাভাবিক। অন্তত পর পর তিনটি ছবিতে যখন দেব’র বিপরীতে রুক্মিনী’র দেখা মিলেছে তখন এবারেও প্রত্যাশার পারদ তুমুল হতেই হয়। প্রথমের দিকে দেব রুক্মিনী’র থাকার আভাস দিলেও গতকাল মুক্তি প্রাপ্ত ছবির ফার্স্টলুক পোস্টারে দেখা মিললো না তাঁর। এরমানে সিনেমা প্রেমীদের এবারের মতো মিস করতেই হবে রুক্মিনী মৈত্র’কে।

প্রশ্ন আরও এক খানি আসে। রুক্মিনী যখন নেই তখন তাঁর জায়গায় কাকে দেখতে পাবে আপমর দর্শক। উত্তরটা জানা গেলো ফার্স্টলুক পোস্টার থেকেই। রুক্মিনী’র বদলে সেখানে দেখতে পাওয়া গেলো কৌশানি’কে। এছাড়াও থাকছেন পূজা।