এই সায়াহ্নে ফিরে আসবে কি সোনালি সময় ?

কুমার শানু

১৯৮৯ সাল, হিরো হিরালাল সিনেমার মাধ্যমে প্রথম মানুষ জানতে পারে কেদারনাথ ভটচাজ ওরফে কুমার শানু কে কিন্তু জনপ্রিয়তা এনে দেয় ১৯৯০ এর আশিকি সিনেমা দিয়ে৷ নাদিম শ্রাবণের সুরে প্রথম ফিল্মফেয়ার পান৷ পর পর পাঁচবার। তারপর কত অজস্র সিনেমায় গান গেয়েছেন তার ইয়ত্তা নেই। কিন্তু দশ বছর হয়ে গেল তিনি সিংহাসন থেকে সরেছেন। ক্রমশঃ টলিউড ইন্ড্রাস্ট্রিও মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছে তার কাছ থেকে। এই সায়াহ্নে ফিরে আসবে কি সোনালি সময়?

কুমার শানুসামনেই বাঙালির সব থেকে বড় উৎসব দূর্গাপুজো। আর এই পুজোতেই রিলিজ হতে চলেছে এই মুহুর্তে টলিউডের অন্যতম সেরা পরিচালক কৌশিক গাঙ্গুলীর ছবি ‘কিশোরকুমার জুনিয়র‘। সেখানে একের পর এক গান গেয়েছেন কুমার শানু৷ সুতরাং আশা করাই যায় কুমার শানুর সোনালি সময় ফিরছে। কিন্তু সাম্প্রতিক অতীতের নানা ঘটনা অন্য কথা বলছে।

২০০৩ এ তিন তিনটে নমিনেশন পাওয়ার পরও ফিল্মফেয়ার পেলেন না যখন একটু অভিমান করেছিলেন। তারপর আস্তে আস্তে ২০০৬ পর্যন্ত ফর্মটা ছিল। বহু সঙ্গীত পরিচালক যারা শানুর জন্যই হিট হয়েছিলেন তারাও একসময় ভুলে যেতে থাকে৷ বেশ কয়েক বছর পর অক্ষয়কুমারেরাউডি রাঠোরে গান গাইতে দেখা যায় তাঁকে। তখনও ভক্তরা আশা করা করেছিল তিনি ফিরবেন। ফেরেননি। এরপর ২০১৫তে ‘দম লাগাকে হেঁইসাঅনু মালিকের সুরে দুটি গান গাইলেন। কিন্তু ফিরে পেলেন না সিংহাসন৷ কারণ সিনেমাটা ৯০দশকের পটভূমিতে ছিল। সেখানে নায়ক শানু ভক্ত ছিলেন। সেটাকেই পর্দায় নিয়ে আসতে পরিচালক কুমার শানুকে নিয়ে গান গাওয়ান। অর্থাৎ চিত্রনাট্যের সাপেক্ষেই তাঁর আগমন।

কুমার শানুএকই ঘটনা কিশোরকুমার জুনিয়র এর ক্ষেত্রেও হয়েছে। গল্পের নায়ক প্রসেনজিত একজন কিশোরকন্ঠী মাচাশিল্পী। সুতরাং পরিচালকের এমন একজন গায়কের প্রয়োজন ছিল যিনি কিশোরকন্ঠী গান করেন। আমরা সবাই জানি শানু কিশোরকন্ঠী ছিলেন বলেই কল্যানজি আনন্দজি তাঁর নাম দিয়েছিলেন, কুমার শানু। তাই তাঁকে দিয়েই গান গাওয়ালেন কৌশিক গাঙ্গুলী। অর্থাৎ এখানেও চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে কুমার শানুর ব্যবহার হয়েছে। সুতরাং তিনি হারানো সিংহাসন ফিরে পাবেন কিনা সন্দেহ থেকেই যায়।

বাঙালি যতই এখন লিংকিং পার্ক বা অরিজিৎ সিং শুনুক নব্বই দশকে যারা বড় হয়েছিলেন তারা এখনো শেষ রাতে পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুরে কুমার শানুর ‘তুমি এলেনা…’ শুনতে ভালোবাসে। তাই ভক্তরা তো বটেই আমরা সবাই চাইবো তিনি স্বমহিমায় আবার ফিরে আসুন আর লতা মঙ্গেশকরের মত বহুদিন গেয়ে যান।

Writen By – শোভন নস্কর