অপুকে ভুলে সামনে এগোতে চান শুভ !

আরিফিন

বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৃষ্ট চরিত্র ‌‘অপু’কে চলচ্চিত্র জগতে আনেন সত্যজিৎ রায়। বিভূতিভূষণের ‘পথের পাঁচালী’ ও ‘অপরাজিত’ উপন্যাসকে তিন ভাগে ভাগ করে ট্রিলজি নির্মাণ করেছিলেন সত্যজিৎ রায়। ‘পথের পাঁচালী’, ‘অপরাজিত’ এবং ‘অপুর সংসার’। এবার পরিচালক শুভ্রজিৎ মিত্র ‘অপরাজিত’ উপন্যাসের শেষ ১০০টি পাতার ওপর নির্ভর করে ‘অভিযাত্রিক’ নামে একটি সিনেমা নির্মাণ করছেন বলে কথা ছিল। ছবিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের পর অপুর ভূমিকায় সিলেক্ট করা হয় এখনকার বাংলাদেশের হার্টথ্রব আরিফিন শুভ কে। অপুর স্ত্রী অপর্ণার ভূমিকায় রাণী রাসমণি খ্যাত দিতিপ্রিয়া। যে রোল করেছিলেন শর্মিলা ঠাকুর। মে মাসেই ছবির শ্যুটিং শুরু। আধুনিক রূপে ‘অপুর সংসার’।

কিন্তু কালো ছায়া নেমে এল শুভর সফল ক্যারিয়ারে। ‘অভিযাত্রিক, দ্য ওয়ান্ডার লাস্ট অব অপু’ ছবি থেকে বাদ পড়লেন শুভ। সম্প্রতি ভারতে লোকসভা প্রচারে বাংলাদেশী অভিনেতাদের ভোট প্রচারে অংশগ্রহন করা নিয়ে বিতর্ক তৈরী হওয়ায় তাদের ভারত ছাড়তে হওয়ায় ‘অভিযাত্রিক’ ছবির প্রযোজনা সংস্থা আরিফিন শুভকে তাদের ছবিতে আর নিতে চাননা জানিয়ে দিলেন তারা এটাই বাদ পড়ার কারন মনে হচ্ছে। ফিরদৌস, গাজী আবদুন নূরের ভারত ছাড়ার পর শুভকেও বাদ দেওয়া হল। ফিরদৌসের দায় আরিফিনকে মাথায় নিতে হল দাবী করছেন শুভ ভক্তরা। ই মেল বার্তায় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, অনভিপ্রেত সামাজিক ও রাজনৈতিক কারণে আরিফিন শুভর সঙ্গে তারা কাজ করতে পারছে না। অনেকের মতে, বাংলাদেশী অভিনয়শিল্পীদের আপাতত ওয়ার্ক পারমিট ভিসা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় দূতাবাস। আর সেই কারণেই কালজয়ী ‘অপু’ হতে পারলেন না আরিফিন শুভ।

সিনেমাটির পরিচালক শুভ্রজিৎ মিত্র গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘ফিরদৌস আর নূরের বিতর্কিত কাণ্ডের কারণে কোনো বাংলাদেশী শিল্পীকে ওয়ার্ক পারিমিট দেয়া হচ্ছে না। সেজন্য ছবিটিতে আরিফিন শুভর অভিনয় করা হচ্ছে না। ফিরদৌস ও নুর যে কেন তখন নির্বাচনে প্রচারণায় অংশ নিতে গেলেন! প্রচুর টাকা ক্ষতি হয়ে গেলো আমাদের। সব চূড়ান্ত করে ফেলেছিলাম আমরা। মে মাসের ১৫ তারিখ থেকে শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল। আমদের পুরো টিম কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়েছে। এখন রাতারাতি কাউকে রিপ্লেসমেন্টও করা যাচ্ছে না। গত কয়েকমাস ধরে ছবিটি নিয়ে পুরো টিম পরিশ্রম করে যাচ্ছিল। এখন সেই পরিশ্রমটাই বৃথা গেলো। আমরা দিল্লিতে শুভর ভিসার বিষয়ে আবেদন করেছিলাম। কিন্ত কাজ হয়নি। এই পরিস্থিতিতে ছবির কাজটা পিছিয়ে গেলো। এবছর ছবির কাজ শুরুই করতে পারব না।’ তবু একটা ভালো খবর , পরিচালক রঞ্জন ঘোষ ও ঋতুপর্ণা-র ‘আহা রে’ ছবির বক্সঅফিস সাফল্যর পর ভাবছেন ‘আহা রে দুই’ করার আর তাতে শুভই থাকছেন নায়ক।