Home সিনেমা টলিউড দীর্ঘ অন্তরালের পর ফিরছেন ইতিহাস কে সঙ্গে নিয়ে
আর্ট

আর্ট ফিল্মবোদ্ধাদের কাছে উত্তমকুমারের জনপ্রিয়তা ছিল অসহ্য !

চল্লিশ বছর হয়ে গেল তিনি নেই কিন্তু আজও তিনি আছেন। তাঁর জনপ্রিয়তা এতটুকু কমেনি। আজও পূরণ হয়নি তাঁর ছেড়ে যাওয়া সিংহাসন। তিনি উত্তম কুমার।উত্তম...
অজয় কর -র জন্মদিন

অজয় কর ও সপ্তপদী !

২৭ শে মার্চ ছিল কিংবদন্তি পরিচালক অজয় কর -র জন্মদিন। যিনি চমকপ্রদ অভিনব ছবি করেও প্রাপ্য সম্মান পাননি তার কাজের রক্ষনারেক্ষণ হয়নি।কিন্তু তাঁর ছবি...
অপর্ণা সেন

আশির দশকের এক অন্য গল্প !

আজকের অপর্ণা সেন মানেই 'থার্টিসিক্স চৌরঙ্গী লেন','পরমা','সোনাটা','পারমিতার একদিন'। নায়িকা অপর্ণা কে ভাবলে ফিল্মবোদ্ধারা ভাবেন 'সমাপ্তি','বাক্স বদল','মহাপৃথিবী' নিদেনপক্ষে উত্তম কুমারের সঙ্গে 'জয় জয়ন্তী'। কিন্তু আশির দশকে...

দীর্ঘ অন্তরালের পর ফিরছেন ইতিহাস কে সঙ্গে নিয়ে

দীর্ঘ অন্তরালের পর আবার রুপোলী পর্দায় ফিরছেন ডিস্কো ডান্সার।ছবির পরিচালক মানস মুকুল পাল।স্বাধীনতা সংগ্রাম নিয়ে গল্প।আমাদের চেনা ইতিহাসের বিপ্লবীর অচেনা গল্প বলবেন মানস ও মিঠুন।মানস মুকুলের ‘সহজ পাঠের গপ্পো’ আলোড়ন তৈরী করেছিল। অচেনা দুই কিশোরকে দিয়েই মানস মুকুল তাঁর জাত বুঝিয়ে দেন। সেই থেকেই তাঁর উপর নিজের কামব্যাক মুভির জন্য ভরসা করেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। ১৯৩০ সালে বিনয়, বাদল, দীনেশের রাইটার্স অভিযানই এই ছবির প্লট। কিন্তু মানস মুকুল বলবেন মূলত বিপ্লবী দীনেশ গুপ্তর গল্প।মিঠুন এরকম স্বাধীনতা সংগ্রামের গল্প নিয়ে আগে কিছু ছবি করেছেন। দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে ‘চাকা’ কিংবা ‘ফেরারী ফৌজ’ -এর মতো ছবি।

কিন্তু দীনেশ গুপ্ত র গল্পটা আরো চমকপ্রদ। পরিচালকের কথায়, “অনেক স্বাধীনতা সংগ্রামীই তাঁদের অসামান্য অবদান রেখে গেছেন। তার কতটুকুই বা আমরা জানি। এমন অনেক বিপ্লবী ছিলেন যাঁদের সম্বন্ধে আমাদের জ্ঞানের পরিসীমা সীমিত। দীনেশ গুপ্ত তাঁদেরই মধ্যে একজন। তাঁর জীবনের গল্পকেই তাই বেছে নিয়েছি আমি।” ছবির নাম এখনও ঠিক করেননি বলে জানিয়েছেন মানস। তবে মিঠুনের চরিত্রটি কি দীনেশ গুপ্তরই? নাকি তাঁর সঙ্গে জড়িয়ে থাকা গুরত্বপূর্ন চরিত্র? সে কথা এখনও খোলসা করেননি পরিচালক।বিনয় বাদল দীনেশ নিয়ে ছবি অঞ্জন দত্ত,অনিকেত চট্টোপাধ্যায়রাও করতে চান। যেখানে ভাবা হয়েছিল দেব কেও। কিন্তু মানস মুকুল আর পিছিয়ে আস্তে চাননা।

পরিচালক মানস মুকুল পাল জানান, ” মিঠুনদার চরিত্রে নাম কী তা এখনই বলতে চাইছি না, তবে এটুকু বলতে পারি উনি এমন একটা চরিত্র করছেন যাঁর ভারতবর্ষের স্বাধীনতা সংগ্রামে অসামান্য অবদান রয়েছে।কিন্তু তাঁর নাম আমরা কেউ অবগত নই। স্বাধীনতা সংগ্রামে এই চরিত্রের কী অবদান রয়েছে, সেগুলো জানা তো পরের কথা আমরা হয়তো তাঁর নামই জানি না। তবে তাঁর এই চরিত্রটা এক্কেবারেই রিয়েল লাইফ চরিত্র। কিছুদিন আগেই মুম্বইতে গিয়ে মিঠুনদাকে চিত্রনাট্য পড়ে শুনিয়েছি। উনি ছবিটি করার বিষয়ে সম্মতি দিয়েছেন।”

দীর্ঘ অসুস্থতা পেরিয়ে ফিরছেন মিঠুন। মিঠুন ভক্তদের কাছে এ এক দারুন উপহার।

MUST READ

নটবর ১০০তেও নটআউট !

বাবা সতু রায় ছিলেন নির্বাক যুগের বিখ্যাত অভিনেতা। কিন্তু তাতে ছেলের বিশেষ কিছু সুবিধে হয়নি। তাঁর জন্ম বরিশালে। বাবা পরে চলে আসেন কলকাতায়। শেষে...

তোমায় আমায় মিলে !

তাঁরা দুজনে অতনু ঘোষের দুটি ছবি পৃথক ভাবে করেছেন। 'ময়ুরাক্ষী' এবং 'বিনি সুতোয়'। কাদের কথা বলছি? হ্যাঁ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও জয়া আহসান। কিন্তু এবার...

বাংলার বাইরে মুক্তি পেল ‘গোত্র’

উইনডোজ নিবেদিত 'গোত্র' রিলিজ করেছে জন্মাষ্টমীতে। ইতিমধ্যে বক্সঅফিস কালেকশানে সর্বোচ্চ হয়েছে ছবিটি। কলকাতা সহ শহরতলীর প্রতিটি হলের প্রতিটি শো হাউসফুল। শিবপ্রসাদ-নন্দিতা জুটির প্রতিটি ছবিতেই...

কোয়েল নিবেদিত ছবিতে ভূতপরী জয়া !

পরী পিসি থেকে ভূত পরী। হ্যাঁ সৌকর্য ঘোষালের 'রেনবো জেলি' শিশুমহল থেকে বড়দের সবার খুব কাছের ছবি। যেখানে শ্রীলেখা মিত্র পান একটি সেরা চরিত্র...