ফিকশ্যান আর বাস্তবের সংমিশ্রণে জাতীয় মঞ্চে ‘তোর্সা’!

‘দাদা সাহেব ফালকে ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’এ বাঙালির সংযোজন থেকেই থাকে। এবারও অন্যথা হয়নি। তবে বেশিরভাগটাই ছিলো উঠতি প্রজন্মের হাতে। ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম মেকারদের কাঁধে ভর করে দিল্লির বুকে এবারেও ছাপ ফেললো বাঙালি চলচ্চিত্র শিল্প। এর মধ্যেই অন্যতম একটি নাম শুভদীপ চক্রবর্তী। ফুল লেন্থ ফিচার ফিল্ম মেকিংয়ে এখনো হাত দেন নি। তবে পরিচালকের আবহে এই নাম নতুন’ই বটে। ‘অন্তর্দীপন’ ছিলো প্রথম ছবি। প্রথম ছবিতে যেটুকু অভিজ্ঞতা হয়েছিলো তা দিয়েই দ্বিতীয় ছবি ‘তোর্সা’র জন্য সাহস পেয়েছিলেন শুভদীপ। গত ৩০শে এপ্রিল দিল্লিতে অনুষ্ঠিত অষ্টম ‘দাদা সাহেব ফালকে ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’এ প্রদর্শিত হয় তাঁর ছবি “তোর্সা”। সেখানে ছবিটি প্রশংসিত হয় বিচারকদের মধ্যেও। তবে দৃষ্টি আকর্ষনের মূল কেন্দ্র ছিলো শুভদীপ’র পরিচালনা।

আরও পড়ুন : যখন তখন নাকি ভুত দেখছেন শাকিব-রুদ্রনীলরা!

শুভদীপ আমাদের জানান, “তিনি ফিল্ম প্রদর্শনীর সময় ব্যাঙ্গালোরে থাকায় আর সচক্ষে কিছুই দেখে ওঠা হয়নি। তবে বাকি যেসব সার্টিফিকেট তাঁর প্রাপ্য তা দিল্লি থেকেই আনিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করছেন তিনি। ‘দাদা সাহেব ফালকে ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’ কতৃপক্ষের সাথে সেরকমই কথা হয়েছে তাঁর।”

ছবিটি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি সংযোজন করেন, “ছবিটির বিষয় বস্তু শহর। তবে কেবল যে ফ্রিক্সণ রয়েছে তাতে সেরকম কিন্তু নয়। যতটা ফিকশ্যান ছবিতে কাজে লাগানো হয়েছে ঠিক ততটাই আলাপ সারা যাবে বাস্তবের সাথেও।” এই ফিকশ্যান আর বাস্তবের ব্যাপারটা বারবারই উঠে এসেছে শুভদীপের কথায়। বোঝায় যাচ্ছে, ক্যামেরার পেছনে থেকেও তিনি জোর দিয়েছেন ঠিক একই ব্যাপারে।