Home ফিরে দেখা এই তো হেথায় কুঞ্জ ছায়ায় !
কণিকা

” আমার মৃত্যুর খবর যেন মিডিয়াকে না জানানো হয়।” – কণিকা মজুমদার !

তিনি 'রক্তকরবী' র নন্দিনী। কখনও তিনি মণিমালিকা, কখনও তিনি দময়ন্তী, কখনও তিনি প্রতিমা৷ ‘মণিহারা’, ‘চিড়িয়াখানা’, ‘হার মানা হার’ ছবিতে এরা তাঁরই অভিনীত চরিত্র৷ কণিকা...
অঞ্জন চৌধুরী

বাংলা ছবির দু:সময়ের অন্নদাতা ! ব্রাত্য বাংলা সিনেমার একশো বছরের ইতিহাসে !

যাঁকে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসব গুরুদক্ষিণা টুকুও দিলনা। তিনি বাংলা ছবিকে বউ সিরিজ উপহার দিয়ে ডুবিয়ে দিয়ে গিছেন আজকালকার জ্ঞানপাপী দুটো শর্ট ফিল্ম বানানো পরিচালকরা...
মনিকা বেলুচ্চি

অষ্টম আশ্চর্য মনিকা বেলুচ্চি !

তখন সবে মাল্টিমিডিয়া ফোন এসেছে। একটা ছোট্ট ক্লিপ তখন প্রায় অনেকের মোবাইলে৷ যৌনতার জন্য দেখা। তারপর খোঁজ নিয়ে দেখা গেল সেটা ইতালির বিখ্যাত সিনেমা...

এই তো হেথায় কুঞ্জ ছায়ায় !

মার ছোটোবেলা কেটেছে যার গানেগানে গতকাল ছিল তাঁর জন্মদিন। পঁচাশিতম জন্মদিনে রুমা গুহঠাকুরতা। ছোটোবেলা জুড়ে শীতকালে ময়দানে বিদ্যাসাগর মেলা, সমবায় মেলা, নেতাজী সুভাষ মেলা, বিবেকানন্দ মেলা, সুখাদ্য মেলা আরো সারা শীতকালটাই মেলা হত। যে মেলাগুলোর নাম বললাম ওগুলো আর হয়না। এইসব মেলা মানেই ছিল মুক্তমঞ্চে গান নাচের অনুষ্ঠান। অকৃতজ্ঞ বাঙালী জাতি সব ইতিহাস ভুলে যেতে পারে।

রুমা গুহঠাকুরতাকিন্তু এই গুণীমানুষ দের জন্মদিন গুলো মনে করিয়ে দেয় সেই মধূর স্মৃতি। বিদ্যাসাগর মেলা থেকে সুভাষ মেলা সবেতেই থাকত গানের জলসা আর দেশাত্মবোধক গানের ডালি নিয়ে হাজির হতেন রুমা গুহঠাকুরতা ও তাঁর ক্যালকাটা ইউথ কয়্যার। ও ভালো কথা, তখন কিন্তু মেলা গুলোতে শুধু বিদ্যাসাগর,নেতাজী,স্বামীজীর ছবি থাকত। ক্যালকাটা কয়্যার ছিল কল্যান সেন বরাটের।সেটি এখনও আছে। আর ক্যালকাটা ইয়ুথ কয়্যার রুমা দেবীর। লাল পাড় সাদা ধনেখালী শাড়ীতে, সিল্ক নয়, আর পাজামা পাঞ্জাবীতে সবাই দাঁড়িয়ে গান গাইতেন। মাঝে হারমোনিয়াম নিয়ে রুমা গুহঠাকুরতা। কিসব গান উদ্দত কন্ঠে। ময়দান গমগম করত সন্ধ্যে থেকে রাত।

Ruma Guha Thakurta‘বিস্তৃর্ন দু-পারে’, ‘উঠো গো ভারত লক্ষ্মী’, ‘মুক্তির মন্দির সোপান তলে’, ‘হেই সামালো ধান হো কাস্তেটা দাও শাণ হো জান কবুল আর মান কবুল আর দেবনা আর দেবনা রক্তে বোনা ধান মোদের প্রাণ হো।’ সব গনসঙ্গীত,স্বদেশ পর্যায়ের গানে কি দারুন সেই স্মৃতি। আজ ভাবলেও অবাক লাগে ময়দান কত কত মুক্তমঞ্চে ইতিহাসের গানের সাক্ষী। শুধু রূমা গুহঠাকুরতা নন, তখন নির্মলা, বনশ্রী, মাধুরী, আরতি, ইন্দ্রাণী সেন ওদিকে সনৎ সিংহ, অজিত পান্ডে, অধীর বাগচী প্রমুখ। স্বর্ণযুগের শেষদিকটা।

Ruma Guha Thakurtaআমাদের যখন প্রথম কেবল টিভির লাইন এলো। সিক্সে পড়ি। তখন ডিডি সেভেনে বাংলা ছবি হত রোজ। প্রথম রোববার সকালে যে বাংলা ছবিটা দেখেছিলাম ….. ‘ক্ষনিকের অতিথি’। তপন সিনহার ছবি। রুমা গুহঠাকুরতা ও নির্মল কুমার এবং এক শিশু শিল্পী। কি ভালো লেগেছিল, মন কেমন করা গল্প। তারপর যেমন ‘নির্জন সৈকতে’ র আধুনিকা বিধবা চুপচাপ সুন্দরী ছোটো বৌদি। ছায়া দেবী ভারতী দেবী রেণুকা রায় রুমা গুহঠাকুরতা রা সেরা নায়িকার জাতীয় পুরস্কার ভাগ করে নেন। যা বাংলা ছবির ইতিহাসে ঐতিহাসিক। নারীদের জয় চরিত্রাভিনেত্রীদের জয়। কোনো রোববার আবার ‘পার্সোনাল এসিন্ট্যাট’ এ দমফাটা হাসি ভানু – রুমা – রেনুকা।

Ruma Guha Thakurtaরুমা গুহঠাকুরতা মননশীল ছবির সঙ্গেও বলিউডে কিশোর কুমার ঘরনী হয়েও এলিট ক্লাসে থেকে সত্যজিৎ রায়ের পারিবারিক সম্পর্কে থেকেও একদম মূলধারার ছবিতে আশির নব্বই দশকে চুটিয়ে মায়ের অভিনয় করেছেন। সবকটা ছবি সুপারহিট। ত্রয়ী তে প্রদীপ কুমার ঘরনী, একান্ত আপনে ভিক্টর শকুন্তলা বড়ুয়ার মা, আবার অমর সঙ্গীতে বিজয়েতা পন্ডিতের মা, অঞ্জন চৌধুরীর ‘চৌধুরী পরিবার’ এ ভরা সংসারের জননী। সব মাধ্যমে একটা বৃত্ত সম্পূর্ণ করেছেন যে বিদুষী।

Ruma Guha Thakurtaভালো থাকুন গায়িকা নায়িকা বিদূষী। উনি যে নৃত্যপটীয়সীও ছিলেন ‘পলাতক’ ছবিতে কিংবা ‘এন্টনি ফিরিঙ্গি’ র যজ্ঞেশ্বরী কে দেখলে তার প্রমাণ পাই। পঁচাশিটি গোলাপ রাখলাম আপনার পায়ে। প্রণাম।

তার এই শুভ জন্মদিনের কিছু মুহূর্ত পরিবারের সাথে :

This slideshow requires JavaScript.

ছবি সৌজন্যে – অমিত গাঙ্গুলী ও পরিবার

Written by শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

দর্শক এই শিবপ্রসাদকে পেতে চাইবে বারবার !

MUST READ

মহালয়ার সেরা পাঁচ ‘ মহিষাসুরমর্দিনী ‘

আকাশবাণী কলকাতার 'মহিষাসুরমর্দিনী 'র পর টেলিভিশনে 'মহিষাসুরমর্দিনী' সবার কাছেই ভালোবাসার। কিন্তু এখন অনেক চ্যানেল হওয়া সত্ত্বেও টিভির মহালয়া দর্শকের বিরক্তি উদ্রেক করে। সেই মেগার...

পুজোর সেরা পুরুষ কে ? এবার পুজোয় অভিনব উৎসব !

পুরুষ। পুরুষ যেন পড়ে পাওয়া চোদ্দ আনা। নারী দিবস নিয়ে হৈচৈ। নারী দিবসের দরকার তো আছেই কিন্তু পুরুষ দিবস কবে কোনদিন আমরা কজন জানি?...

এবার মহালয়াতেই অকাল বোধন !

দেবী দুর্গার ত্রিনয়ন, যার জ্যোতিতে আলোকিত বিশ্ব। সৃষ্ট প্রাণ। আমরা দেবী দুর্গাকে চোখে দেখিনি দেখিনা। কিন্তু দুর্গা মানে এক শক্তি। নারী শক্তি। ধরিত্রীতে সকল...

নটবর ১০০তেও নটআউট !

বাবা সতু রায় ছিলেন নির্বাক যুগের বিখ্যাত অভিনেতা। কিন্তু তাতে ছেলের বিশেষ কিছু সুবিধে হয়নি। তাঁর জন্ম বরিশালে। বাবা পরে চলে আসেন কলকাতায়। শেষে...