Home ফিরে দেখা উত্তম-সুচিত্রা-হেমন্ত-সন্ধ্যা জুটির শেষ দলিল 'প্রিয় বান্ধবী'।
কণিকা

” আমার মৃত্যুর খবর যেন মিডিয়াকে না জানানো হয়।” – কণিকা মজুমদার !

তিনি 'রক্তকরবী' র নন্দিনী। কখনও তিনি মণিমালিকা, কখনও তিনি দময়ন্তী, কখনও তিনি প্রতিমা৷ ‘মণিহারা’, ‘চিড়িয়াখানা’, ‘হার মানা হার’ ছবিতে এরা তাঁরই অভিনীত চরিত্র৷ কণিকা...
অপরাজিতা

“আমার ছবি, আমি তোকে বাদ দিতেই পারি!” ঋতুপর্ণ বলেছিলেন অপরাজিতাকে !

"- ও তোমার কদর করতে পারবে ?" "- বাবু, কদর তো কত লোক করে বল... ভালোবাসার সাহস কতজনের আছে বল তো ? " এই বিখ্যাত দৃশ্যে...
চুটকি

পেশায় আইনজীবী নেশায় অভিনেতা ! আজ চোখ থাকুক অবলাকান্তর গল্পে

রাজ্যের সবাই যুদ্ধ ভুলে হাঁড়ি হাঁড়ি মিষ্টি নিয়ে দৌড়চ্ছে... আর তারই মধ্যে একজন সীমাহীন আনন্দে দু'হাত তুলে মুক্তির আনন্দ উদযাপন করছে...ছুটি , ছুটি !!! কিছু...

উত্তম-সুচিত্রা-হেমন্ত-সন্ধ্যা জুটির শেষ দলিল ‘প্রিয় বান্ধবী’।

“এমন একটি গল্প বলতে পারো যাতে বিরহ নেই
ফুলসজ্জার এমন কোনো রাত দেখেছ কি
যাতে মিলন নেই।”

সন্ধ্যা মুখার্জ্জীর শেষ গান উত্তম সুচিত্রা জুটির ছবিতে। ‘প্রিয় বান্ধবী’ তে সুচিত্রার লিপে। হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ও গেয়েছিলেন এ ছবিতে। হীরেন নাগের ১৯৭৫ র ছবি ‘প্রিয় বান্ধবী’। উত্তম কুমার সুচিত্রা সেন বাদেও, সুচিত্রার লম্পট চরিত্রহীন স্বামীর ভূমিকায় দিলীপ মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও ছিলেন ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু উত্তম-সুচিত্রা জুটির সবচেয়ে বালখিল্য চিত্রনাট্য ছবি এটি। কিন্তু ম্যাডাম খুব দাপট দেখিয়েছিলেন শেষ কিছু দৃশ্যে। তিন সপ্তাহ অরুনা ভারতী তে চলেছিল শূণ্য প্রেক্ষাগৃহে। কিছু দর্শক অবশ্যই দেখেছিল। ১৯৭৫ র পুজোর দুটি ছবি ‘প্রিয় বান্ধবী’ আর ‘সন্ন্যাসী রাজা’ পাশাপাশি বিজলী আর ভারতীতে চলেছিল অক্টোবরে। কিন্তু ‘সন্ন্যাসী রাজা’ যে ঐতিহাসিক সুপারহিট করে ঠিক তার উল্টো ‘প্রিয় বান্ধবী’ সুপার ফ্লপ করে। তাই হয়তো এই জুটি আর ছবি করেননি। উত্তমও অবিশ্যই চলে গেলেন।সুচিত্রাও 1978 ‘প্রণয় পাশা’ র পর অন্তরালে। অথচ ১৯৭৫ এ হিন্দিতে ‘আঁধি’ র মতো কালজয়ী ছবি সুচিত্রা করেন। ১৯৭৫ এ উত্তম করেন ওঁর বলিউডে প্রথম হিট ছবি ‘অমানুষ’।
বাংলা ছবিতে উত্তম সুচিত্রা জুটিকে উন্নত ভাবে বয়সোচিত রোলে নিয়ে ওদের সেই বয়সের রোম্যান্টিক ছবি কেউ বাননানি। ‘নবরাগ’ একমাত্র ব্যতিক্রম। কিন্তু তারপর আর ওদের জুটি কে নিয়ে ভালো চিত্রনাট্যের বাংলা ছবি আসেনি। ‘প্রিয় বান্ধবী’ শেষ দলিল উত্তম সুচিত্রা হেমন্ত সন্ধ্যা জুটির। তাই ছবিটির ঐতিহাসিক গুরত্ব কম নয়। ‘প্রিয় বান্ধবী’ বালখিল্য চিত্রনাট্য হলেও উত্তম সুচিত্রার বিগত যৌবন বিশ্রী মেক আপ হলেও ছবির শেষ দৃশ্যে ওদের সেই আলিঙ্গন অসাধারন। উত্তম জহর ও সুচিত্রা শ্রীমতী। সুচিত্রা ডায়লগ বলেছিল উত্তমকে “তোমায় কেউ ধরে রাখতে পারবেনা। তুমি কাউকে ধরা দেবেনা’। হল সেই উত্তমকে কেউ ধরে রাখতে পারলনা। ‘প্রিয় বান্ধবী’ হয়েই রয়ে গেলেন সুচিত্রা আজীবন উত্তমের।

লেখক শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

Click To Follow Our Twitter

 

MUST READ

মহালয়ার সেরা পাঁচ ‘ মহিষাসুরমর্দিনী ‘

আকাশবাণী কলকাতার 'মহিষাসুরমর্দিনী 'র পর টেলিভিশনে 'মহিষাসুরমর্দিনী' সবার কাছেই ভালোবাসার। কিন্তু এখন অনেক চ্যানেল হওয়া সত্ত্বেও টিভির মহালয়া দর্শকের বিরক্তি উদ্রেক করে। সেই মেগার...

পুজোর সেরা পুরুষ কে ? এবার পুজোয় অভিনব উৎসব !

পুরুষ। পুরুষ যেন পড়ে পাওয়া চোদ্দ আনা। নারী দিবস নিয়ে হৈচৈ। নারী দিবসের দরকার তো আছেই কিন্তু পুরুষ দিবস কবে কোনদিন আমরা কজন জানি?...

এবার মহালয়াতেই অকাল বোধন !

দেবী দুর্গার ত্রিনয়ন, যার জ্যোতিতে আলোকিত বিশ্ব। সৃষ্ট প্রাণ। আমরা দেবী দুর্গাকে চোখে দেখিনি দেখিনা। কিন্তু দুর্গা মানে এক শক্তি। নারী শক্তি। ধরিত্রীতে সকল...

নটবর ১০০তেও নটআউট !

বাবা সতু রায় ছিলেন নির্বাক যুগের বিখ্যাত অভিনেতা। কিন্তু তাতে ছেলের বিশেষ কিছু সুবিধে হয়নি। তাঁর জন্ম বরিশালে। বাবা পরে চলে আসেন কলকাতায়। শেষে...