Home ফিরে দেখা উত্তম-সুচিত্রা-হেমন্ত-সন্ধ্যা জুটির শেষ দলিল 'প্রিয় বান্ধবী'।
অপর্ণা সেন

আশির দশকের এক অন্য গল্প !

আজকের অপর্ণা সেন মানেই 'থার্টিসিক্স চৌরঙ্গী লেন','পরমা','সোনাটা','পারমিতার একদিন'। নায়িকা অপর্ণা কে ভাবলে ফিল্মবোদ্ধারা ভাবেন 'সমাপ্তি','বাক্স বদল','মহাপৃথিবী' নিদেনপক্ষে উত্তম কুমারের সঙ্গে 'জয় জয়ন্তী'। কিন্তু আশির দশকে...
আশিকির

আশিকি সিনেমার পিছনে কিছু অজানা কথা !

১. মহেশ ভাট ইন্দ্রানী রায়ের আর্টিকেল খুব পছন্দ করতেন৷ একদিন ইন্দ্রানী রায়ের বাড়িতে গেলে তার ছেলে দেখে পছন্দ হয় এবং আশিকির জন্য অফার দেন। ২....
যাত্রা মেগাস্টার নটসম্রাট স্বপন কুমারের আজ জন্মদিন।

স্বপ্নের ‘নটসম্রাট’ স্বপন কুমার !

আমরা সবসময় বড় পর্দা নিয়ে আলোচনা করি কিন্তু আজকের লেখা একটু ভিন্ন। আজকের বিষয় যাত্রা। একটা সময়ে যখন সিনেমা সেভাবে ছিল না, টেলিভিশন ছিল দূর...

উত্তম-সুচিত্রা-হেমন্ত-সন্ধ্যা জুটির শেষ দলিল ‘প্রিয় বান্ধবী’।

“এমন একটি গল্প বলতে পারো যাতে বিরহ নেই
ফুলসজ্জার এমন কোনো রাত দেখেছ কি
যাতে মিলন নেই।”

সন্ধ্যা মুখার্জ্জীর শেষ গান উত্তম সুচিত্রা জুটির ছবিতে। ‘প্রিয় বান্ধবী’ তে সুচিত্রার লিপে। হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ও গেয়েছিলেন এ ছবিতে। হীরেন নাগের ১৯৭৫ র ছবি ‘প্রিয় বান্ধবী’। উত্তম কুমার সুচিত্রা সেন বাদেও, সুচিত্রার লম্পট চরিত্রহীন স্বামীর ভূমিকায় দিলীপ মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও ছিলেন ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু উত্তম-সুচিত্রা জুটির সবচেয়ে বালখিল্য চিত্রনাট্য ছবি এটি। কিন্তু ম্যাডাম খুব দাপট দেখিয়েছিলেন শেষ কিছু দৃশ্যে। তিন সপ্তাহ অরুনা ভারতী তে চলেছিল শূণ্য প্রেক্ষাগৃহে। কিছু দর্শক অবশ্যই দেখেছিল। ১৯৭৫ র পুজোর দুটি ছবি ‘প্রিয় বান্ধবী’ আর ‘সন্ন্যাসী রাজা’ পাশাপাশি বিজলী আর ভারতীতে চলেছিল অক্টোবরে। কিন্তু ‘সন্ন্যাসী রাজা’ যে ঐতিহাসিক সুপারহিট করে ঠিক তার উল্টো ‘প্রিয় বান্ধবী’ সুপার ফ্লপ করে। তাই হয়তো এই জুটি আর ছবি করেননি। উত্তমও অবিশ্যই চলে গেলেন।সুচিত্রাও 1978 ‘প্রণয় পাশা’ র পর অন্তরালে। অথচ ১৯৭৫ এ হিন্দিতে ‘আঁধি’ র মতো কালজয়ী ছবি সুচিত্রা করেন। ১৯৭৫ এ উত্তম করেন ওঁর বলিউডে প্রথম হিট ছবি ‘অমানুষ’।
বাংলা ছবিতে উত্তম সুচিত্রা জুটিকে উন্নত ভাবে বয়সোচিত রোলে নিয়ে ওদের সেই বয়সের রোম্যান্টিক ছবি কেউ বাননানি। ‘নবরাগ’ একমাত্র ব্যতিক্রম। কিন্তু তারপর আর ওদের জুটি কে নিয়ে ভালো চিত্রনাট্যের বাংলা ছবি আসেনি। ‘প্রিয় বান্ধবী’ শেষ দলিল উত্তম সুচিত্রা হেমন্ত সন্ধ্যা জুটির। তাই ছবিটির ঐতিহাসিক গুরত্ব কম নয়। ‘প্রিয় বান্ধবী’ বালখিল্য চিত্রনাট্য হলেও উত্তম সুচিত্রার বিগত যৌবন বিশ্রী মেক আপ হলেও ছবির শেষ দৃশ্যে ওদের সেই আলিঙ্গন অসাধারন। উত্তম জহর ও সুচিত্রা শ্রীমতী। সুচিত্রা ডায়লগ বলেছিল উত্তমকে “তোমায় কেউ ধরে রাখতে পারবেনা। তুমি কাউকে ধরা দেবেনা’। হল সেই উত্তমকে কেউ ধরে রাখতে পারলনা। ‘প্রিয় বান্ধবী’ হয়েই রয়ে গেলেন সুচিত্রা আজীবন উত্তমের।

লেখক শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

Click To Follow Our Twitter

 

MUST READ

দীর্ঘ অন্তরালের পর ফিরছেন ইতিহাস কে সঙ্গে নিয়ে

দীর্ঘ অন্তরালের পর আবার রুপোলী পর্দায় ফিরছেন ডিস্কো ডান্সার।ছবির পরিচালক মানস মুকুল পাল।স্বাধীনতা সংগ্রাম নিয়ে গল্প।আমাদের চেনা ইতিহাসের বিপ্লবীর অচেনা গল্প বলবেন মানস ও...

লক্ষ্মী এল ঘরে, মা হলেন কনীনিকা

তুমি আমার মা , আমি তোমার মেয়ে ... কন্যা সন্তানের জননী হলেন কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার সকালে কন্যা সন্তানের মা হলেন কনিনীকা। নতুন সদস্য এল...

সংসারের ব্যাটন ঠিক কার হাতে ? এখনো ধন্দে বাঙালী

বাংলা চলচ্চিত্রে বিবাহ সম্পর্কিত ছবির সংখ্যা নেহাতই কম নয়,যা বার বার আমাদের দেখিয়েছে তার সুবিধা সাথে তার সাইড এফেক্টস । কিন্তু তাতেও কি মানুষের...

চিরবিদায় নাট্যকার অভিনেতা সমাজকর্মী গিরিশ কারনাড !

প্রয়াত বিখ্যাত নাট্যকর্মী, চলচ্চিত্র অভিনেতা তথা সমাজকর্মী গিরিশ কারনাড। সোমবার সকালে বেঙ্গালুরুতে তাঁর বসতবাড়িতে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। ।...