উষ্ণতার মাঝে ঠাণ্ডা বাতাস অন্বেষার গলায়!

সংগীত প্রযোজক অনঞ্জন চক্রবর্তী তার নিজস্ব "অনঞ্জন ষ্টুডিও" এবং মহুয়া লাহিড়ী'র "আশা অডিও"র যৌথ প্রযোজনায় 'গ্লোবাল ওয়ার্মিং' এর ওপর উপস্থাপনা করতে চলেছেন অন্বেষা দত্তগুপ্তের সুরেলা কণ্ঠে একটি সিঙ্গল গানের ভিডিও সং।

হালফিলে “গ্লোবাল ওয়ার্মিং” এক নিত্যদিনের সমস্যায় পরিনত হয়েছে।বিভিন্ন কলকারখানা-যানবাহন থেকে নির্গত একরাশ বিষাক্ত কার্বন ডাই অক্সাইড,  ক্রমাগত বৃক্ষচ্ছেদন, গ্রীন হাউস এফেক্ট, উচ্চ ফলনের আশায় জমিতে অধিক মাত্রায় রাসায়নিক সার প্রয়োগ সবমিলিয়ে প্রকৃতি ভীষণভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ছে। যার ফলস্বরূপ শস্যের ফলনের হার কমে যাচ্ছে, অনিয়মিত ঝড়-জল-বৃষ্টির প্রকোপ দেখা দিচ্ছে, বিভিন্ন প্রজাতির অবলুপ্তিকরন ঘটছে এছাড়াও আরো কত কি। প্রতিদিন পৃথিবীর মানুষজনদের বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে একটু একটু করে ক্ষতি হচ্ছে পৃথিবীর। তবুও কি মানুষ সচেতন?

ঠিক এইরূপ অবচেতনতার মধ্যেই বাংলার বিশিষ্ট ক্লাসিক্যাল সংগীত শিল্পী অজয় চক্রবর্তীর পুত্র , সংগীত প্রযোজক অনঞ্জন চক্রবর্তী তার নিজস্ব “অনঞ্জন ষ্টুডিও” এবং মহুয়া লাহিড়ী’র “আশা অডিও”র যৌথ প্রযোজনায় ‘গ্লোবাল ওয়ার্মিং’ এর ওপর উপস্থাপনা করতে চলেছেন অন্বেষা দত্তগুপ্তের সুরেলা কণ্ঠে একটি সিঙ্গল গানের ভিডিও সং।

অনঞ্জন চক্রবর্তীর কথায় অ্যালবামের চেয়ে সিঙ্গেলস অনেকবেশি প্রচলিত। সোশ্যাল মিডিয়া মারফত শ্রোতার কোন পৌঁছনো খুবই সহজ। তাই অ্যালবাম অপেক্ষা সিঙ্গেলস তৈরির প্রস্তাব অনেকবেশি গ্রহণযোগ্য ছিল অন্বেষার কাছে।তাছাড়াও পৃথিবী তো ভালো নেই, তাই একটা গানের মাধ্যমে যদি খানিকটা স্বস্তি দেওয়া যায়। তারই প্রচেষ্টায় গানটিকে সর্ব ভারতীয় স্তরে পৌঁছাতে হিন্দিতে গাওয়ানো হয়েছে, এমনটাই জানা গেছে এক দৈনিক প্রতিবেদন মারফত।

চারিদিকে ‘গ্লোবাল ওয়ার্মিং’ এর এত সচেতনতার মধ্যে এমন একটা গানে অন্বেষার পার্টিসিপেট করার অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে আমাদের GulGal-কে জানান –

“‘ইটস নট এক্সাক্টলি এবাউট গ্লোবাল ওয়ার্মিং’, প্রথমে একটি সিঙ্গল অডিও করতে ইচ্ছুক সুরকার অনঞ্জন দা আমায় গানের কম্পজিশন পাঠান, আমার পছন্দ হয় এবং গানটি করতে আমি রাজি হই। গানটির অডিও রেকর্ডিং ও হয়ে যায়। তারপর অনঞ্জন দা ডিসাইড করে গানটির ভিডিও বানানোর। আর তখনই আশা অডিও’র মহুয়া দি ভিডিওটিতে ‘গ্লোবাল ওয়ার্মিং’ এর কনসেপ্টটা ইমপ্লিমেন্ট করার কথা বলেন, তারপরই অনঞ্জন দা আর মহুয়া দি’র যৌথ পরিচালনায় পরবর্তিকালে গানটির ভিডিও শুট করা হয়। তাই গানটি ‘নট ফোকাসিং অন গ্লোবাল ওয়ার্মিং এক্স্যাক্টলি, বাট গ্লোবাল ওয়ার্মিং ইস এ রেজাল্ট অফ হোয়াটএভার উই সীন’।”

তবে গানটির রিলিজ ডেট এখনো ঠিক হয়ে ওঠেনি, সেটা জানতে অবশ্যই নজর রাখুন GulGal.com এ।