মাঝনদীতে বিভ্রাট, বিপাকে প্রসেনজিৎ!

কলকাতা থেকে পাড়ি দিয়েছিলেন স্বয়ং প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী। সঙ্গে অঙ্কুশ এবং শ্রাবন্তী'র উপস্থিতি একটা স্বস্তির সঙ্গ দিয়েছিলো মহানায়ক'কে।

Prosenjit Chatterjee

রোজ ডে পেরিয়ে ভ্যালেন্টাইনসের নির্বিশেষে প্রায় শেষ পর্যায়ে বাঙালির প্রেম পর্ব। শুধু বাঙালি নয়, প্রেম রোগ ঝাপটে ধরেছে বাংলার ওপারের মানুষদেরও। এদিকে প্রেম মাদকতায় নেশাগ্রস্ত আমাদের চিরচেনা টলিপাড়াও। ভ্যালেন্টাইনসের ছোঁয়ায় বেশ মেতে উঠেছিলো ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী সুন্দরবন অঞ্চলও। সেখানে সামিল হতে সুদূর কলকাতা থেকে পাড়ি দিয়েছিলেন স্বয়ং প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী। সঙ্গে অঙ্কুশ এবং শ্রাবন্তী’র উপস্থিতি একটা স্বস্তির সঙ্গ দিয়েছিলো মহানায়ক’কে।

Prosenjit, Ankush & Srabanti

কিন্তু তাদের যাত্রা পথে বাধা সাজলো সুন্দরবনের নিস্তব্ধতা চিরে যাওয়া এক ভ্রাম্যমাণ নদী। নদীতে পাড়ি দেওয়ার ক্ষনিকের মধ্যেই ভাটার কারনে যান্ত্রিক ত্রুটির সন্মুখীন হয় তারকাদের স্টিমার। এদিকে চারপাশে নিশ্চুপতা আর অন্ধকার যেন একে ওপরের অলংকার হয়ে ঘুম ছুটিয়ে দিচ্ছিলো মহানায়ক তথা তাঁর সঙ্গীদের। দিগ্বিদিক শুন্য হয়ে তখন শুধু জীবন যাই যাই অবস্থা সকলের। অবশেষে ভাগ্যের পরিহাসে কোনোরুপে সুন্দরবনের রণমূর্তী ভেদ করে স্বস্তির নিঃস্বাস ফেলেন টলিপাড়ার তিন জনপ্রিয় চরিত্র।