সেদিন বসন্তে…!

এক ত্রিকোণ প্রেমের কাহিনী বড়পর্দায় তুলে ধরতে চলেছেন বাংলার অনন্য পরিচালক সঞ্জয় গুহ পরিচালিত আগত বাংলা ছবি 'সেদিন বসন্তে'।

“গলির মাঝে বেলা যে পড়ে এল, পুরোনো সুর ফেরিওয়ালার ডাকে, দূরে বেতার বিছায় কোন মায়া, গ্যাসের আলো জ্বালায় দিন শেষে, সহসা গ্রাম হৃদয় দিল হানা, পড়ল মনে খাসা জীবন সেথা” – ভালোবাসার অনুভূতিগুলিও যেন ঠিক এইরকমই হয়। নিজ পরিচিতি তৈরী করতে মানুষকে হতে হয় নানান পরিস্থিতির সম্মুখীন। কখনও সাফল্য, কখনও বিফলতা, তারই মাঝে হয়ত কোনো অজানা হয়ে পরে আপনার থেকেও অনেক বেশি প্রিয়। কিন্তু বাস্তব মানুষকে খুব সহজেই বুঝিয়ে দেয় ভালো-মন্দের এক সহজ ব্যাখ্যা। আর তা ছাড়াও যুগ যুগ ধরে ভালোবাসা প্রমান করে এসেছে যে তার নেই কোনো সীমানা, নেই কোনো বাধ্য বাধকতা, সে সবসময়ই সমুদ্রের ঢেউয়ের মত বারবার আছড়ে পরে মানুষের জীবনে। কিন্তু সময়ের বীভৎস বোঝা যাতে অনুভব করতে না হয়, তবে মানুষকে অবশ্যই মাতাল হতে হয়।

ঠিক সেইরকমই চিন্তা ভাবনার সমন্বয়ে এক ত্রিকোণ প্রেমের কাহিনী বড়পর্দায় তুলে ধরতে চলেছেন বাংলার অনন্য পরিচালক সঞ্জয় গুহ পরিচালিত আগত বাংলা ছবি ‘সেদিন বসন্তে’। সিনেট্যাব ফিল্ম ওয়ার্কস প্রোডাকশনসসের ব্যানারে আশিষ সিনহা প্রযোজনায় সম্প্রতি প্রকাশ্যে এল তাদের ‘সেদিন বসন্তে’ ছবির এক মন ছুঁয়ে যাওয়া ট্রেলার।

নিদারুন এক নৃত্য শিল্পী অনুরাধা, যার দু-চোখ ভরা সফলতার সেই চরম শীর্ষতা।আর তারই সেই পথ চলার সাথী এক দাম্ভিক ডিজাইনার। গল্পের শুরুতে এই দুইয়ের এক অসাধারণ কেমিস্ট্রি নজর পড়লেও গল্পের বিস্তারে দেখা গেছে মান-অভিমানের চরম পরিণতি।আর সেইখানেই অনুরাধার মনে দাগ কাটতে থাকে এক প্রতিভাবান অঙ্কন শিল্পীর বিচার-বুদ্ধি ও তার মানসিকতা, যা আবারও অনুরাধাকে নিয়ে যায় ভালোবাসার আরেক সফরে। কিন্তু জীবন তো সবসময় আমাদের নিয়ন্ত্রণে চলে না, আঁকা বাঁকা পথে প্রবাহমান নদীর মত এগিয়ে চলাই জীবন। এক্ষেত্রেও ব্যাপারটা একেবারেই তাই, তিনটি সম্পর্কের টানাপোড়েন কি পারবে তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে? তা জানতে হলে অবশ্যই অপেক্ষা আরও বেশ কিছুদিনের।কারণ আগামী ১’লা সেপ্টেম্বরেই ছবিটি আস্তে চলেছে আপনাদের নিকটবর্তী প্রেক্ষাগৃহে।

ছবিটির মুখ্য চরিত্রে আছেন ইন্দ্রানী দত্ত এবং তার সহ কলাকুশলীদের মধ্যে আছেন কৌশিক সেন, দেবদূত ঘোষ, শকুন্তলা বড়ুয়া, বাসুদেব মুখার্জী, রজত গাঙ্গুলী ও গৌতম মুখার্জী ছাড়াও আরও অনেকে।সদ্য প্রকাশিত ছবির ট্রেলারটি ইতিমধ্যেই সারা ফেলেছে টলি পারায়, এইবার আপনার দেখার পালা।