নিন, ‘প্রজাপতি বিস্কুট’এ প্রথম কামড়টা দিয়ে দিন তো!

এক মিষ্টি গল্পের আকারে বাংলার দর্শকদের কাছে তুলে ধরতে চলেছেন পরিচালক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, যার নাম রেখেছেন 'প্রজাপতি বিস্কুট'।

দিনের শেষে ম্লান হয়ে আসা সূর্যের আলোর দিকে চেয়ে, অজানা এক ভোরের আশায়, খামখেয়ালি কোন ছেলে নদীর পারে দাঁড়িয়ে স্বপ্ন বোনে তার অল্প-বিস্তর স্বপ্নের। নদীর গা ঘেঁষে তৈরী একটি বাড়ি, যেখানে সবুজ রঙা প্রজাপতির মতো ছুটে চলা একটি মন হঠাৎ করেই ময়ূরের পেখমের মতো রং-বেরঙের ইচ্ছেয় ভর করে জানালা দিয়ে পৌঁছে যেতে চায় বিয়ের এক মিষ্টি বাঁধনে। নিত্যদিনের বয়ে চলা জলের স্রোতের মতো এইরকম অগণিত স্বপ্নের আকাশকুসুম কল্পনা করার মানুষ যে দুনিয়ায় নেহাৎ কম নেই তা হয়তো আমার, আপনার সকলেরই জানা কিন্তু ঠিক সেই ঘটনাই যদি হয় আপনার সাথে, তাহলে? সেই ভাবনাকেই একেবারে বাস্তবে এক মিষ্টি গল্পের আকারে বাংলার দর্শকদের কাছে তুলে ধরতে চলেছেন পরিচালক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, যার নাম রেখেছেন ‘প্রজাপতি বিস্কুট’। উইনডোজ ও গণপতি প্রোডাকশান এর ব্যানারে সম্প্রতি ৩’রা অগাস্ট প্রকাশ্যে এল সেই ছবিরই এক অসাধারণ টিজার।

বাংলার জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘চন্দ্রবিন্দুর’ মুখ্য গায়ক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় তার মন খুশ করা গানের মাধ্যমে মানুষের মন জয়ের পাশাপাশি ২০১৫ সালে পরিচালনা করেছিলেন তার প্রথম ছবি ‘ওপেন টি বায়োস্কোপ’। অল্প বয়সী কিছু ছেলের জীবনের ওঠা-পড়া নিয়ে তৈরী এই ছবিটির নিদারুন সাফল্যের পর আবারও তৈরী করতে চলেছে বাস্তবিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত আরেকটি ছবি ‘প্রজাপতি বিস্কুট’।

আরও পড়ুন : প্রজাপতি যখন “উইন্ডো” দিয়ে রসগোল্লার উপর এসে বসে…!

অনেকগুলি ছবির পর পর সাফল্যের পর এই ছবিটিতে প্রযোজনার দায়ভার নিয়েছেন নন্দিতা রায়, শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং অতনু রায়চৌধুরীর মতো ব্যক্তিত্বরা। এছাড়াও ছবিটিতে অভিনয়ে আছেন আদিত্য সেনগুপ্ত, ঈশা সাহা, অপরাজিতা আঢ্য, খেয়া চট্টোপাধ্যায়, রজতাভ দত্ত এবং শান্তিলাল মুখার্জি।