প্রয়াত সাহিত্যিকের সাহিত্য নিয়ে বাংলা ছায়াছবি ও তার প্লট

চলচ্চিত্র

বিখ্যাত সাহিত্যিক দিব্যেন্দু পালিত প্রয়াত। বার্ধক্যজনিত কারণে অনেকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন দিব্যেন্দু পালিত। কয়েকদিন আগে ব্রেন স্ট্রোক হয় তাঁর। উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবিটিস ভোগাচ্ছিল তাঁকে। গতকাল তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৫০ মিনিট নাগাদ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় লেখকের। আনন্দ পুরস্কার, সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত সাহিত্যিকের অবদান শুধু সাহিত্য জগতেই নয় তাঁর লেখা সাহিত্য চিত্রনাট্যে সমৃদ্ধ হয়েছে চলচ্চিত্র জগৎ। আসুন দেখে নিই প্রয়াত সাহিত্যিকের সাহিত্য নিয়ে বাংলা ছায়াছবি ও তার প্লট।

অন্তর্ধান (1992 )

নব্বই দশকে কলকাতা দূরদর্শনে সন্ধ্যেবেলা হলেই একটা কয়েক মিনিটের অনুষ্ঠান হত ‘নিরুদ্দেশ সম্পর্কে ঘোষনা’। যাদের আত্মীয় পরিজন হারিয়ে গেছেন নিরুদ্দেশ তাঁদের খোঁজখবরের ঘোষনা। ঠিক এরকম এক পরিবারের গল্প নিয়েই লিখলেন দিব্যেন্দু পালিত। এক অষ্টাদশীর হারিয়ে যাবার গল্প। প্রফেসর সুশোভন মুখোপাধ্যায়ের কন্যা নিরুদ্দেশ। অসুস্থ জ্যাঠুকে দেখতে যাচ্ছে বলে সে নিঁখোজ। আসলে এক প্রতারক প্রেমিকের পাল্লায় পড়ে অষ্টাদশী তরুনী , জীবন মরণ বিপদ ডেকে আনে।মেয়েকে খুঁজতে বাবা মা আত্মীয় পরিজনদের কি কি হেনস্থা হতে হয় সেই নিয়ে গল্প। এটা কিন্তু সত্যি ঘটনা অবলম্বনে লেখা ও ছবি হয়। বেহালা নিবাসী রায়চৌধুরী ডাক্তারের মেয়ে একই ভাবে প্রেমিকের পাল্লায় পড়ে নিঁখোজ হয়। সংবাদ শিরোনামে উঠে আসে আশির দশকে সে খবর। সেই ঘটনা ভেবেই দিব্যেন্দু পালিতের ‘অর্ন্তধান’। এই ছবির কাহিনী ও মূল সংলাপ দুই দিব্যেন্দু পালিতের।পরিচালক তপন সিনহা।অভিনয়ে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়,মাধবী চক্রবর্তী,শতাব্দী রায়,অর্জুন চক্রবর্তী।

ঢেউ

নব্বই দশকে দিব্যেন্দু পালিতের ‘ঢেউ ‘ গল্প নিয়ে ছবি নয় ধারাবাহিক হয়। এবং খুব বতর্ক তৈরী হয়। মুনমুন সেন ও অভিষেক চট্টোপাধ্যায় অভিনীত ধারাবাহিকDaughters of This Century (2001) পাঁচটি ছোটো গল্প নিয়ে তপন সিনহার এই ছবি। ছবিটি নন্দনে কিছুদিনের জন্য রিলিজ করেছিল। রবি ঠাকুর ,শরৎচন্দ্র থেকে দিব্যেন্দু পালিত। দিব্যেন্দু পালিতের ‘কাঁচ’ গল্পে অভিনয় করেন সুলভা দেশপান্ডে ও দেবশ্রী রায়।

নামতে নামতে (2013)

দিব্যেন্দু পালিতের ‘ত্রাতা’ গল্প অবলম্বনে এই ছবি। পরিচালক রানা বসু। টিপিক্যাল বাঙালী পরিবারের গল্প। তাঁদের কি বিপদের সন্মুখীন হতে হয় নতুন পাড়ায় এসে। আনন্দ আর সীমা ও তাঁদের কন্যার ছোটো পরিবার। নতুন পাড়ার সমাজবিরোধী থেকে মেয়েকে পড়াতে আসা গৃহশিক্ষকের দ্বারা কি কি বিপদের হাতে পড়ে তাঁরা সেই নিয়ে গল্প। রজতাভ দত্ত ও রূপা গাঙ্গুলী অভিনীত ছবি।বিশেষ ভূমিকায় টোটা, পাড়ার গুন্ডার ভূমিকায় শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের সেরা অভিনয়ের একটি এ ছবি। এছাড়াও রয়েছেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়।