Home সিনেমা টলিউড এবার গল্পকার অরিন্দম গাঙ্গুলী !
আলিফ

নব্বইয়ের দশকে রোমাঞ্চ সৃষ্টিকারী ‘আলিফ লায়লা’ !

নব্বইয়ের দশকে ছোটবেলা যারা কাটিয়েছে তারা 'আলিফ লায়লা' দেখেনি এমন সম্ভবনা খুবই কম। রাতে পড়াশোনার শেষে সপ্তাহে একদিন ওই আধঘন্টা চোখ সরাতে পারতাম না...
Romen Roy Chowdhury

জননী’র বড়খোকা, মেজখোকা ও সেজখোকা তিনজনেই এখন চিরতরে মায়ের কাছে ..

সুপ্রিয়া দেবীও প্রয়াত। জননীর তিন সিরিয়ালের ছেলেও প্রয়াত। জননী তে বড় খোকা হন রমেন রায়চৌধুরী, মেজ পার্থ মুখোপাধ্যায়, সেজ শিলাদিত্য পত্রনবীশ। এঁরা সবাই আজ...

‘উনিশে এপ্রিল’ বাংলা ছবির বাঁক বদলের দিন !

ঋতুপর্ণ যুগ শুরু হল। জাতীয় পুরস্কার মঞ্চে বাংলা ছবির ও নায়িকার জয়জয়কার। জাতীয় পুরস্কার নিয়ে চর্চা শুরু হল বাঙালীর। অন্দরমহল থেকে গোল টেবিল বৈঠক।...

এবার গল্পকার অরিন্দম গাঙ্গুলী !

বিগত তিপান্ন বছর ধরে তাঁর অভিনয় ও সঙ্গীত জীবনে পথ চলা। বয়সের পঞ্চাশের ঘরেই পার করে দিয়েছেন অভিনয় জীবনের পঞ্চাশ বছর… সুবর্ন জয়ন্তী। এবার তিনি আরেকটি নতুন রূপে। ‘অভিনব অরিন্দম’। অরিন্দম গাঙ্গুলী। এই বহুমুখী প্রতিভার শিল্পী তাঁর শৈশব থেকে আমাদের একের পর এক চমক দিয়েছেন। সেই ‘প্রস্তর সাক্ষর’ এ সূয্যিমামাকে প্রণাম জানিয়ে যিনি তাঁর অভিনয় জীবনে প্রথম সাক্ষর রাখেন বাংলা ছবিতে তারপর আইকনিক ‘হংসরাজ’, ‘রামকৃষ্ণ’, ‘বামাক্ষ্যাপা’,’নীল সীমানা’ র আদর্শ হিরো কিংবা ‘ভালোবাসি তাই গাই’ এ গায়ক সঞ্চালক। প্রচুর বাংলা ছবি। অন্যদিকে জোছন দস্তিদারের ‘চার্বাক’ যার আরেক তীর্থক্ষেত্র প্রাণকেন্দ্র। সেখানেও আজ গুরু সে। গায়ক,নায়ক, নাট্যকার, পরিচালক, সঙ্গীত পরিচালক অরিন্দম গাঙ্গুলী। এবার অভিনব রূপে অরিন্দম। গল্পকার অরিন্দম গাঙ্গুলী।

মনে আছে রবি ঠাকুরের ‘সোনার তরী’ র সেই পঙক্তি গুলো ;

“ছোট প্রাণ, ছোট ব্যথা,
ছোট ছোট দুঃখ কথা
নিতান্তই সহজ সরল
সহস্র বিস্মৃতিরাশি প্রত্যহ যেতেছে ভাসি
তারি দুচারিটি অশ্রুজল ।
নাহি বৰ্ণনার ছটা, ঘটনার ঘনঘটা,
নাহি তত্ত্ব নাহি উপদেশ ।
অন্তরে অতৃপ্তি র’বে সাঙ্গ করি’ মনে হবে
শেষ হয়ে হইল না শেষ । “

আদর্শ ছোটো গল্পের সংজ্ঞা। এই নীতিতেই ছোটো গল্পের বইয়ের সংকলন প্রকাশিত হল অরিন্দম গাঙ্গুলীর। জীবনে চলার পথে দেখা নানা গল্প।লেখক গল্পকার রূপে অরিন্দম গাঙ্গুলী। বইটির নাম ‘অভিনব অরিন্দম’। বইটির নিবেদনে পত্রভারতী ও স্টারমার্ক। গত ১৬ জুলাই ২০১৯ সাউথ সিটি স্টারমার্কে হয়ে গেল ‘অভিনব অরিন্দম’ বই প্রকাশ। অরিন্দম গাঙ্গুলী সহ অতিথি ছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী,খেয়ালী দস্তিদার ও টলিপাড়ার চেনা মুখরা এবং অরিন্দম খেয়ালী পুত্র আদিত্য, বোন স্বর্ণালী নাগ সহ পরিবারবর্গ। অরিন্দম স্ত্রী খেয়ালী ও ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়ের উদ্যোগেই এই প্রকাশিত হল , ত্রিদিব বাবু সঞ্চালনাও করলেন দারুন।

প্রসেনজিৎ বললেন ” অরিন্দমের কাছে আমি বুম্বা। আমরা ছোটোবেলার বন্ধু। তাই এই অনুষ্ঠান আমার ঘরের অনুষ্ঠান। আমি তো বইটার গল্প গুলো পড়ে আগে ভাবব কোন গল্পটা নিয়ে ছবি করা যায়।যেহেতু আমার মাথায় সিনেমাই ঘোরে। বই যেভাবে মানুষ পড়া কমিয়ে দিয়েছে সবই মোবাইল নেটের যুগ আজকাল সেখানে একটা বইয়ের পাতা উল্টে দেখা প্রিয়জনের লেখায় খুব বড় ব্যাপার। “এরআগে খেয়ালীর লেখা উপন্যাস প্রকাশিত হয়েছিল। সেইথেকেই অরিন্দমের লেখা প্রকাশের পরিকল্পনা।

অরিন্দম গাঙ্গুলী বললেন ” ছোটোবেলা থেকেই এখনও অবসর সময় মানেই লেখা আমার সঙ্গী। গান,নাটকের পাশাপাশি গল্প কবিতা ছোটো থেকেই লিখি। একবার ছোটবেলায় দুষ্টুমি করায় আমার মা অনুভা গাঙ্গুলী বকেছিলেন, তখন আমার লেখা কবিতা গুলো ছিড়ে ফেলি রাগ করে। কিন্তু লেখা ছাড়তে পারিনি। মা কে আজ আনতে পারিনি এতটা ঘুরে সাউথ সিটিতে আনতে হয় বলে।আমায় যারা ভালোবাসেন এসছেন আমি ধন্য।”

যদিও মা অনুভা দেবীই অরিন্দমের গানের গুরু। মা সবজায়গায় নিয়ে যেতেন ছেলেকে গানের জলসা থেকে ছবির শ্যুটিং। আর অভিনয়ের আরেক গুরু জোছন দস্তিদার। তাই গুরু পূর্ণিমার দিন ও জোছন দস্তিদারের প্রয়ান দিবসকে স্মরণ করে ১৬ জুলাই ‘অভিনব অরিন্দম’ গল্পের বইটি প্রকাশিত হল। এটি প্রথম তাঁর প্রকাশিত লেখার একক বই। তাও আবার জীবন থেকে দেখা নানা গল্পের সংকলন। অনুষ্ঠানের শেষ করলেন সবার অনুরোধে হংসরাজ ‘হংসরাজ’ -এরই গান দিয়ে। ‘হংসরাজের শামু দাদাকে নিয়ে আরতি মুর্খার্জ্জীর সেই বিখ্যাত গান হংস অরিন্দমের নিজের গলায় সাউথ সিটি স্টারমার্কে এক মুঠো গ্রাম বাংলার মেঠো পথের সবুজ হাওয়া এনে দিল।

” ও শামু , শ্যাম রে … ফুল ফোটাতে মধুবনে
একবার ডাক দে রে বসন্ত রে
আমি এসে গেছি রে।। “

স্টারমার্ক ও পত্রভারতী তে পাবেন ‘অভিনব অরিন্দম’ গল্প সংকলনটি।

লেখক শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

এনা

MUST READ

১০০ দিনে কথনীয় ‘কন্ঠ’

একশো দিন একশোরও বেশী কন্ঠে উচ্চারিত আজ শিবপ্রসাদ-নন্দিতা জুটির 'কন্ঠ' ছবিটি। উইনডোজ প্রযোজিত 'কন্ঠ' ছবিটি একশো দিন পার করল।'কন্ঠ' ছবির অনুপ্রেরণা একজন ক্যান্সার রোগ...

“ঋতুর মা থেকে শিবুর মায়ের চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে আমি ধন্য।” – অনসূয়া মজুমদার

'মহাপৃথিবী, 'তাহাদের কথা','সম্প্রদান','দেবাঞ্জলী','মুখার্জীদার বউ','গোত্র' ... এক বিশাল সফরের নায়িকা অভিনেত্রী অনসূয়া মজুমদার -এর মুখোমুখি। গুলগাল.কম কে অনসূয়া মজুমদার জানালেন তাঁর রিল টু রিয়েল লাইফের...

রজনীগন্ধা ঝরে গেলেন !

চলে গেলেন বিদ্যা সিনহা। যিনি আলোচনা প্রচারের বাইরে ছিলেন। বলিউড মানে শুধু বিদ্যা বালান নন। তাঁর আগেও সত্তর দশকে দমকা মুক্ত হাওয়ার মতো মধ্যবিত্তর...

পুজারিনীর এই মিমিক্রি না দেখলে কিন্তু মিস করবেন !

পোস্টমাস্টার থেকে বড় পর্দায় উঠে আসা পূজারিণী কিন্তু এখন অনেক পরিণত , হাতে রয়েছে অনেক গুলো ছবি সাথে কিছু ওয়েব এর কাজ । সদ্য...