অদূর ভবিষ্যতে, ভবিষ্যতের ভূত !

ভুত

কোলকাতার ভুতেদের বড় কষ্ট! ফ্ল্যাট আর মাল্টিপ্লেক্সের চক্করে হানাবাড়ির চুরান্ত অনটন। আর তাই নিয়েই ভুতেদের উঠেছে ঠাঁইনারা হবার নাভিশ্বাস। প্লটটা চেনা চেনা লাগছে? আরে ঠিকই ধরেছেন মশাই ভুতের ভবিষ্যত ছবির কথাই বলছিলুম। অনিক দত্ত একদল ভুতের কীর্তি নিয়ে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন সিলভার স্ক্রীন, স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের কদলিবালার ঘোর কেটে বেরোতে পেরেছে এমন বাঙালি সিনেমা লাভার বোধহয় খুব কমই আছে! তো সেই ঘোর কাটতে না কাটতেই অনিক আবার হাজির তার স্পুকি আইডিয়াজ নিয়ে।

অদূর ভবিষ্যতে, ভবিষ্যতের ভুত !নেক্সট প্রোজেক্ট ভবিষ্যতের ভুত। আবার ভুতেদের কান্ডকারখানা রুপোলি পর্দায়! তবে অনিক যখন, তখন কমেডি বিনে নিশ্চয়ই পাত সাজাবেন না! ছবির অফিসিয়াল লোগো লঞ্চ হয়ে গেল তড়িঘড়ি, তাও খোদ ডিরেক্টরের বাড়িতে। ভুত চতুর্দশীতে বসল স্পুকি আড্ডা। কাস্ট বরুণ চন্দ, চান্দ্রেয়ী, রোজা পারমিতা, শুচিস্মিতা, মিউজিক ডিরেক্টর দেবজ্যোতি মিশ্র কে নেই সেই আড্ডায়! গা ছমছম একটা ভালোলাগা অফিসিয়াল লোগো থেকেই নিশ্চিত করেছেন অনিক! এবার ঘরহারা ভুতেদের ডেস্টিনেশন রিফিউজি ক্যাম্প! ছবিতে অনেকদিনের পর রুপোলি পর্দায় মুনমুন সেন, রয়েছেন সব্যসাচী চক্রবর্তী, খরাজ আরও অনেকে।

অদূর ভবিষ্যতে, ভবিষ্যতের ভুত !এই ছবির লোগো যদিও আবার বেশ অনেকটা মনে করিয়ে দিল বাঙালির আর এক এভারগ্রিন প্রিয় ভুত কে। একটু লক্ষ্য করলেই মনে পড়ে যাবে গুপি বাঘার ঘোস্ট গড ফাদার ভুতের রাজার কথা! সেই যে তারকা চিহ্নের আলোর মধ্যে থেকে হঠাৎ উদয় হওয়া ভুতের রাজা, এ যেন তারই রিক্রিয়েশান! যবর যবর তিনটে বরের একটার আশিস তাই অলরেডি হাতিয়ে নিয়েছেন অনিক! ভুতের রাজার আশিস নিয়ে ভুতের ছবির লোগো লঞ্চ, ব্যাপারটা বেশ ইন্টারেস্টিং! তার উপর আবার রয়েছে ভুতের ভবিষ্যতের ম্যাজিক, ছবি ভালবেসে যে অনেকেই ভিড় করবেন হলে তাও নিঃসন্দেহে বলা যায়! ছবির স্টোরি এখোনো রিভিল নয়, তবে ভুতের ভবিষ্যতের সিকোয়েল নয়, একেবারে হাতে গরম স্টোরি নিয়ে রেডি অনিক! জানালেন নিজেই।

এবার আসা যাক নামের বিশ্লেষণে! ভুত মানে কিন্তু অতীত-ও হয়; ভবিষ্যতেও যে অতীত থাকতে পারে এই ভাবনাটা বেশ অভিনব; কী নতুন ভুতুড়ে জাল পাতছেন অনিক! লালমোহন বাবু হলে বলতেন,’হাইলি সাসপিসাস!’ আর আমরা? মৃদু ভয় বুকে চেপে হল রিলিজের দিনটার অপেক্ষাতে রইলাম!