যতুগৃহে ফিরছেন গোয়েন্দা চিরঞ্জীত

গোয়েন্দা

ডিরেক্টর অয়ন চক্রবর্তীর ষড়রিপু দর্শকের প্রশংসা পেয়েছিল বেশ। তবে তার চেয়েও বেশী প্রশংসিত হয়েছিল চিরঞ্জীত চক্রবর্তীর গোয়েন্দা চরিত্র চন্দ্রকান্ত। ক্ষুড়ধার বুদ্ধি, ইউটি ডায়ালগ ডেলিভারি আর বেশ হিডেন একটা রহস্যের জাল বোনা যৌবন পেরোনো চন্দ্রনাথের রোলে এক কথায় চিরঞ্জীতকে মানিয়েছিল দুর্দান্ত। আর তাই হয়তো দর্শকের কাছে চন্দ্রকান্তকে দর্শকের কাছে ফিরিয়ে আনার লোভ সামলাতে পারলেনটা ডিরেক্টর অয়ন চক্রবর্তী। এবারের ছবির নাম ষড়রিপু টু: যতুগৃহ। যদিও চন্দ্রনাথ আর তার নতুন রহস্য ছাড়া ষড়রিপুর সিকোয়েল হিসাবে কোনো মিল-ই নেই এই ছবির। ছবির মূল গল্পের কেন্দ্রে রয়েছে, মেঘা নামের এক মেয়ের গল্প। চরিত্রে অভিনয় করছেন অরুণিমা ঘোষ। মেঘার তার বাবার বন্ধু দেবরাজকে(শাশ্বত চ্যাটার্জি) ঘটনাচক্রে বিয়ে করা, সাইকোপ্যাথ দেবরাজের চুরান্ত অত্যাচার, আর তারপর তার হঠাৎই মার্ডার হয়ে যাওয়া, এই সব কিছু ঘিরেই রহস্য। শাশ্বত চ্যাটার্জির চরিত্র সম্পর্কে বলতে গিয়ে ডিরেক্টর জানান, এই ছবি এক ডার্ক রিভেন্জ ড্রামা হতেও পারে আবার নাও পারে, কিন্তু দেবরাজের চরিত্রটির মতো ডার্ক শেডের চরিত্র বাঙলা ছবিতে খুব কমই এসেছে ! ছবিতে রয়েছেন, রাজেশ শর্মা, সৌরভ চক্রবর্তী, দর্শনা বণিক ছাড়াও আরো অনেকে। ছবির শ্যুটিং শুরু হবে নতুন বছরের ফেব্রুয়ারিতে। কোলকাতা আর কার্শিয়াং-এ চলবে শ্যুটিং। কিন্তু এই ছবিতে একটা বেশ বড় পরিবর্তন হলো, চন্দ্রকান্তর অ্যাসিসটেন্টের চরিত্রে আর রইলেন না কনীনিকা ব্যানার্জী। কোনির চরিত্র ষড়রিপুতে বেশ মন ছুঁয়েছিল দর্শকের। এবারে আর ছবিতে নেই তিনি। কেন রইলেন না কোনি, তা নিয়ে কিছুই পরিষ্কার করেননি ডিরেক্টর। নিছকই কী গল্পের প্রয়োজনে, নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য কোনো রহস্য?