উচ্চ যেথা শির..

এই মুহূর্তে বাংলা সিনেমার সবথেকে বড় বাজেটের সিনেমা হিসেবে ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে এসভিএফ’র ১০০তম প্রোডাকশন “অ্যামাজন অভিযান”। এতো বড় বাজেটের ছবি যখন চমকগুলোও যে কিং সাইজ হবে সে নিয়ে সন্দেহ ছিল না, প্রথম বোমাটা ফাটল মোহনবাগান মাঠে, বাংলা সিনেমার সবথেকে বড় পোস্টার লঞ্চ করে এমনকি টেক্কা দিল বাহুবলী’র পোস্টার সাইজকেও। এরপর দ্বিতীয় চমকটা এলো একদম অন্যভাবে! সিনেমার আগেই নাকি আপনি জেনে যাবেন সিনেমার গল্প, আসলে শিশু দিবসের আগে শঙ্কর তথা দেব এবং পুরো ‘অ্যামাজন অভিযান’ টিম বাচ্চাদের জন্য নিয়ে এল আকর্ষণীয় একটা গ্রাফিক বই, যেখানে আপনি পড়তে পারবেন শঙ্করের এইবারের অভিযানের খুঁটিনাটি। কলকাতার এক পাঁচতলা মলের ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে থাকা কালো মাথাগুলো স্বাগত জানালো এই অভিনব প্রচারকে! এছাড়াও ছিল “ক্রাই” নামক একটি এনজিও থেকে প্রায় ১০০ জনের কাছে খুদেরা যারা দেবের থেকে পেলেন এই বই, দেব এবং পরিচালক কমলেশ্বর মুখার্জি’র সই সহ, কেউ কেউ আর বাড়ি ফেরা অবধি অপেক্ষা না করে ওখানেই পড়ে ফেলল আর্ধেক গল্প।

বইটি আপনাদের সামনে নিয়ে এসেছে ‘বি বুক’ নামক প্রকাশনী সংস্থা যেটা আপনি অনলাইন ছাড়াও কলকাতার লিডিং বুকস্টোরগুলোতে পেয়ে যাবেন বাংলা (১০০ টাকা) ও ইংরেজি (১৫০ টাকা) দুটো ভাষাতেই, এছাড়াও চেন্নাই, ব্যাঙ্গালোর, দিল্লীতেও পেয়ে যাবেন এই বই।

এই প্রসঙ্গে এসভিএফ’র অন্যতম কর্ণধার মহেন্দ্র সোনি জানান, ” এটা সিনেমাটা দেখার আগে দর্শকদের একটা আভাস দেওয়া যে তাঁরা কি দেখতে চলেছেন ২২শে ডিসেম্বর বড় পর্দাতে, এই গ্রাফিক বুক লঞ্চ একটা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ এবং আমরা আত্মবিশ্বাসী এই বই প্রত্যেকের পছন্দ হবে”।

হ্যাঁ, এই আত্মবিশ্বাস দেবের চোখে মুখেও ছিল স্পষ্ট। পরিচালক কমলেশ্বর মুখার্জি, সঙ্গীত পরিচালক দেবজ্যোতি মিশ্র সহ অসংখ্য বাংলা সিনেমার ভক্তদের সামনে প্রকাশিত হল এই বই, তাহলে আর দেরি কিসের? সংগ্রহ করে নিন আপনার কপি তার আগে দেখে নিন ঐ দিনের অনুষ্ঠানে কিভাবে সেলিব্রেট করল কলকাতার মানুষ এই অভিনব প্রচার’কে…!

This slideshow requires JavaScript.

লেন্সের ওপারে- ঈশানী রায় চৌধুরী।