বড়োপর্দায় আইপিএস দময়ন্তী!

Rituparna Sengupta

নামে দয়ামন্তী হলেও আদপে আইপিএস দময়ন্তী সেন’র সাথে ফারাক খোজা মুশকিল। আবার দময়ন্তী সেন’র অনুপ্রেরণাও বলতে পারেন। পার্ক স্ট্রিট ধর্ষণ কান্ডের অভিযুক্তদের হাতে হাতকড়া পরানোর পর থেকেই চর্চায় ছিলেন কলকাতা গোয়েন্দা বিভাগের ডেপুটি কমিশনার দময়ন্তী সেন। এবার তাকে ঘিরেই কলম চললো রুপোলী পর্দার গল্পে। নেপথ্যে পরিচালক অর্ণব রিঙ্গো বন্দোপাধ্যায়। তাঁর আগামী ছবি ‘দয়ামন্তী’তে আমরা দেখতে পেতে চলেছি দময়ন্তী সেন’র গা ঘেঁসে যাওয়া একটি চরিত্র।

তবে এই চরিত্রের নাম দয়ামন্তী সিনহা। ইনিও কলকাতা পুলিশের একজন কট্টরপন্থী অফিসার। অন্যায়ের সাথে আপোষ করা তাঁর পোশায় না। হটাৎ একটা সময় এমন একটি কেসের মুখোমুখি হন যার মধ্যে তিনি খুজে পান নিজের অতীতকে। এবং সেই অতীতের সাথে বাস্তবকে মেলাতে গিয়ে বিস্মিত হয়ে পড়েন দয়ামন্তী।

Riingo Banerjee
Riingo Banerjee

দয়ামন্তী’র চরিত্রে ছবিতে দেখতে পাওয়া যাবে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত’কে। এছাড়াও খুজে পাওয়া যাবে ব্রাত্য বসু, কৌশিক সেন, শতফ ফিগার, সায়ন্তনী সেনগুপ্ত, আনন্দ ঘোষ প্রমুখ’দের।

বাংলার কমার্শিয়াল ছবি গুলি সময়ে-অসময়ে নিজেদের জায়গা বুঝে নিলেও ওমেন ওরিয়েন্টেড ছবি গুলি হ্যালির ধূমকেতুর মতোই খুজে পাওয়া কষ্টসাধ্য হয়ে দাড়িয়েছে। এরকম একটি সময়ে দয়ামন্তী’র চরিত্রটি অবশ্যই চোখে লাগবে দর্শক মহলের। আর তাছাড়াও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত’র অভিনয় বাঙালির ভালো লাগতে বাধ্য। তবে দয়ামন্তী’র মতো চরিত্র হয়তো ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত’র কাছেও অনেকটাই নতুন। তাই শেষমেষ রুপোলী পর্দার এপারে একজন নতুন ঋতুপর্ণা’কে খুজে পাওয়ার চান্সও হাতছাড়া করা যাবে না।