চলো পাল্টাই…!!

প্রসেনজিৎ সময়ের সাথে যেমন নিজের "পোসেনজিত" ইমেজ ভেঙে বেরিয়ে এসছে সেই মত ডাক দিচ্ছেন সবাইকে সময়ের সাথে আমাদের এই নতুন দর্শকদের চাহিদা অনুযায়ী বানানো উচিৎ সিনেমা আর তাতেই লুকিয়ে আছে ইন্ডাস্ট্রির সাফাল্য!

যুগ পাল্টেছে, সময় এগিয়েছে আর তার সাথে পাল্লা দিয়ে অনেকটাই নব কলবরে আমাদের টলি ইন্ডাস্ট্রি! সব কিছুর মাঝখানে একজন মানুষ সংযোগস্থাপন করে রয়েছেন নিজের দূরদৃষ্টি দিয়ে তিনি প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জি! স্বপন সাহা, অঞ্জন চৌধুরী, হরনাথ চক্রবর্তী’র মত পরিচালকদের আমলে সিনেমা তৈরির প্রসেস ও সংজ্ঞা ছিল একদম অন্যরকম, একটা সময়ের পর সিনেমার সংখ্যা বেড়ে গেছিলো কিন্তু বক্স অফিস কালেকশন সেভাবে বাড়ে নি, কারন আস্তে আস্তে পরিবর্তন হচ্ছিল মানুষের চিন্তা ভাবনার আর রুচির, তার সাথে পাল্লা দিয়ে এখন টলিউড অনেক স্মার্ট, অনেক ডিসিপ্লিন্ড! যদিও অনেকের আক্ষেপ আছে কমার্শিয়াল সিনেমা অনেকটাই নির্ভরশীল সাউথের সিনেমার উপর, যেটা মোটেই ভালো ইঙ্গিত নয় ইন্ডাস্ট্রির জন্য! উপরের ছবিটা আসলে সুচকমাত্র প্রসেনজিৎ সময়ের সাথে যেমন নিজের “পোসেনজিত” ইমেজ ভেঙে বেরিয়ে এসছে সেই মত ডাক দিচ্ছেন সবাইকে সময়ের সাথে আমাদের এই নতুন দর্শকদের চাহিদা অনুযায়ী বানানো উচিৎ সিনেমা আর তাতেই লুকিয়ে আছে ইন্ডাস্ট্রির সাফাল্য!

বলিউডে কাজ করা অনেক টলি পাড়ার মানুষের মতে ওখানে সবাই অনেক প্রফেশনাল, সিরিয়াস যেটার অনেকটাই ঘাটতি আছে আমাদের টলিউডে তাই এখনই আদর্শ সময় পাল্টে যাওয়ার কারণ ইন্টারনেটের যুগে মানুষ এখন অনেক এডভান্স, বিগত কয়েক বছরে আমরা পেয়েছি অনেক ভালো সিনেমা যেটার চর্চা জাতীয় স্তরে অবধি হয়েছে তাই এই বছর টলিপাড়ার একটাই মন্ত্র হওয়া উচিৎ “চলো পাল্টাই”… শুধু বাংলা নয় গোটা ভারত তাকিয়ে আছে এই ইন্ডাস্ট্রির দিকে কারন ভুললে চলবে না এই ইন্ডাস্ট্রি পেয়েছে সত্যজিৎ রায়, ঋত্বিক ঘটকের মত মানুষদের!