‘খাদ্য রসিক’ থেকে এবারে “প্রেমিক” প্রতিম..!

প্রেম ?? সিরিয়াসলি আবার সেসব করে নাকি! বাবা-মায়ের পছন্দে বিয়ে করো, তারপর তুমি প্রেম করোই না। এরপর যদি ‘শুনছো’ আর ‘হ্যাঁ গো’-র পালা শুরু হয় তাতেই বা মন্দ কি ? কিন্তু প্রেম বা বিয়ে কখন, কিভাবে আর কার ঘাড়ে চেপে বসবে সেটা কে’ই বা বলতে পারে। আরে বাবা! আজকের সমাজ প্রেম ছাড়া আর কিছু বোঝে নাকি? সমাজ, পেশা, পরিবেশ তার ওপর পরিস্থিতি, মিলে-মিশে খিচুড়ি হয়ে প্রেমে ফেলেই ছাড়লো।

এই রে ! প্রেমে তো পড়ে গেলেন। এবার কি হবে ?

উত্তর দেবেন পরিচালক প্রতিম ডি গুপ্ত। অন্তত এনার প্রেমটা ভালোই আসে। সাথে খাবারটাও। খাবারের প্রসঙ্গ তোলার কারণ একটাই। প্রতীম বাবুর সম্প্রতি ছবিগুলিতে খাবারের স্বাদ কিংবা গন্ধ কোনো একটি থেকেই যাচ্ছে। তাহলে কি এই খাদ্য রসিক পরিচালক সিনেমাতেও আলাপচারিতা সারছেন খাবারের সাথে ? না হওয়ার মতো কিছুই নেই। এই যে ধরে নিন “মাছের ঝোল”, ঝোলে,ঝালে প্রেম মিশিয়ে একটি তাজা কেমিস্ট্রি। প্রেমের সবকটা সিলেবাস’ই প্রতিম বাবু মন দিয়ে পড়েছেন।তাইতো প্রেম প্রেম ভাবটা গুলে খাওয়াচ্ছেন নতুন-পুরোনো সবকটা ছবিতে, সেটা “মাছের ঝোল” হোক বা “সাহেব-বিবি-গোলাম”। “মাছের ঝোল” খেয়ে যাদের প্রেম বেড়েছে তাদের জন্য প্রতিম বাবু নিয়ে আসছেন একেবারেই আলাদা স্বাদের একটি ছবি। গল্পটা নেহাতই তাদের যাদের প্রেম করতে মানা। তবে পেশা বা পরিস্থিতির নেশা প্রেমে না ফেলে হাঁপ ছাড়েনা। প্রতিম বাবুর আগামী ছবিতেও নায়ক-নায়িকার এরকমই একটি প্রেমের গল্প উপভোগ করবেন আপমর দর্শক। প্রতিবারের মতোই ঋত্বিক চক্রবর্তী এবং পার্নো মিত্র‘র নাম উঠে এসেছে পরিচালকের পছন্দের তালিকায়। থাকছেন পাওলি দাম‘ও। তবে পাওলি দাম’র বিপরীতে কে থাকবেন ? আসল সাসপেন্স জুড়ে বসেছে এখানেই। খানিকটা সাসপেন্স থাকবে ছবিটির নাম নিয়েও। প্রযোজনা করছেন অভিষেক ঘোষ। এবারও কি খাদ্য রসিক পরিচালক খাবারের সাথে নতুন সম্পর্কে জড়াবেন নাকি নতুন প্রেমের গল্প আত্মপ্রকাশ করবে নতুন নাম নিয়ে। পুরো ব্যাপারটাই এখন আলোচনা সাপেক্ষে।