হঠাৎ সৌমিত্রবাবুর কাছে বকা খেলেন মীর! কেন জানেন?

বট গাছের দিকে কোনো দিন তাকিয়ে দেখেছেন? বুড়ো কিংবা নেতিয়ে যাওয়া বটগাছ? তার সমবয়সী অন্য গাছরা হয়তো জগৎ ছেড়েছে। কিন্তু বুড়ো বটগাছ তো বয়সকে তোয়াক্কায় করে না। সেই প্রথম দিনের মতো আজও ছাওয়া দেওয়ার কাজে সে নিযুক্ত। আর নিযুক্ত’ই থেকে যাবে। অবসরের কথা এখানে আসে না,সেখানে রোদ, জল, শীত তার কাছে খুবই নিম্ন।

বাংলা সিনেমাতেও এরকম একজন বটগাছের খোঁজ পাবেন। যিনি একটা লম্বা প্রজন্ম ধরে বাংলা সিনেমার সুতো ধরে রেখেছেন। ইনি আর কেউ নন আমাদের অতি প্রিয় সৌমিত্র চ্যাটার্জী। তাঁর সমকালীন শিল্পীরা অনেকেই আর জীবিত নেই। তাই বাংলা সিনেমাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ভার এখন একলা হাতেই সামলাচ্ছেন। যেমনটা একজন বটগাছ করে থাকে আর কি। ৮৩ বছর বয়স, তবে আসরে নামলে কচিকাচারাও পাত্তা পায় না। পাবেই বা কি ভাবে ? বাংলা সিনেমার বড়ো কর্তা বলে কথা।

বর্তমানে তিনি কাজ করছেন সত্রাজিৎ সেন’র প্রথম বাংলা ছবি ‘মাইকেল’এ। এই ছবিতে তাঁর স্ক্রিনের অন্যতম ভাগিদার মীর। মীরের চরিত্রটি একজন পরিচালকের আর সৌমিত্র বাবু অভিনয় করছেন একজন বরিষ্ঠ অভিনেতার চরিত্রেই।

দুই প্রজন্মের দুই শিল্পীর মিলনস্থল এই ছবি। যেখানে সনাতন আর আধুনিকতা মিলে গিয়ে সৃষ্টি করবে এক মোহনার। ছবির কাজ শেষ। আর শেষ সময়েই সৌমিত্র বাবুর কাছে বকা খেলেন মীর। তবে সেটা রিল লাইফে।

অনেকেই জানেন দিনে চার ঘন্টার বেশি কাজ করেন না সৌমিত্র চ্যাটার্জী। এই বিষয়টিকে তুলে ধরা হয়েছে ‘মাইকেল’ ছবিতেও। এবং এই নিয়ে মীর একটি কবিতাও বাঁধিয়েছেন। এই কবিতার হদিশ গুলগাল আগেই পেয়েছিলো। স্বয়ং মীর এই কবিতার হদিশ দিয়েছিলেন আমাদের এক সাক্ষাৎকারে, সহাস্যে বলেছিলেন,

“শুটিং করতে এলো সবাই হাতে নিয়ে সাইকেল/ জমে গেছে সত্রাজিৎ সেনের মাইকেল/ আমি চার ঘণ্টার বেশি পারবো না। যদি দেরি হয়ে যায় তোমাকে আমি ছাড়বো না/ চার ঘণ্টার বেশি আমি পারবো না!”

কিছুদিন পরেই সেই কবিতা নিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করে ফেলেন মীর সহ পুরো মাইকেল টিম। তবে সেখানে লিরিক্সের কিছু পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। যাইহোক, চাইলে আপনারাও সেই কবিতাটি শুনে নিতে পারেন এবং জেনে নিতে পারেন মীরের বকা খাওয়ার কারণ! তবে সৌমিত্রবাবু খুব প্রশংসা করেছেন মীরের এই অভিনব চিন্তাকে।

আগামী ৯ তারিখ মুক্তি পাচ্ছে ‘মাইকেল’। ‘মাইকেল’র জন্য শুভকামনা প্রার্থনা করে আজমের শরিফেও উপস্থিত হয় গোটা টিম। আপনারাও প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবিটি দেখুন এবং আমাদের জানান কেমন লাগলো সত্রাজিৎ সেন’র ‘মাইকেল’?