গোটা টলিপাড়া হাজির ‘হামি’র জন্য! কেন জানেন?

এই গরমের ছুটিতে বাংলা দর্শকের জন্য উইন্ডোজ প্রোডাকশন-এর তরফ থেকে ছিল ‘হামি’। এই ছবির মধ্যে দিয়ে কিছু খুদের স্কুল জীবনের গল্প নিয়ে এসেছিলো নন্দিতা রায় এবং শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। গল্পের সাথে মিশে ছিল বাঙালী সেন্টিমেণ্টও । কিছুদিন আগেই আমরা আপনারা জেনেছেন ‘বুক মাই শো’ তে হামির পাবলিক রিভিও ছিল সর্বোচ্চ। তবে সফলতার গণ্ডী এখানেই সীমাবদ্ধ নয়। দর্শকদের ভালোবাসার মধ্যে দিয়ে পর্দায় সফল হল হামির হাফ-সেঞ্চুরি, টানা ৫০ দিন সিল্ভার স্ক্রিনে হামি!

তবে এই সফলতা শিবপ্রসাদ এবং নন্দিতার জন্যও নতুন নয়। তাদের বৃহত্তর সফলতার পথে চলা শুরু ‘বেলাশেষ’ ‘র মধ্যে দিয়ে, যেই ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে পূরণ করেছিল ১০০ দিন। আর এখানেই শেষ নয়, তারপর এই প্রোডাকশন হাউস থেকে মুক্তি পায় একের পর এক ব্লকবাস্টার ‘প্রাক্তন’, ‘পোস্ত’ সেই ছবি গুলো ঘিরেও সফলতার একই মাত্রা ধরা পরেছে। পর পর তিনটি অসাধারন গল্প, সাথে সেই ছবি সেঞ্চুরির পর কোথাও যেন হামি ঘিরেও রয়ে গিয়েছিলো একটা আলাদা উত্তেজনা দর্শক মহলে। সেইখান থেকে নিরাস করে নি হামি’ও। একই ভাবে যে ছুঁয়ে গেছে দর্শকের মন, যেন সেটাই প্রমান রাখছে এই পঞ্চাশ দিনের সফলতা। তবে এই সফলতার মধ্যে দিয়ে হামির পথ চলা আরও কতটা দীর্ঘ হয়, সেটা শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।