রিলিজের আগেই রাজ্য সরকারের আশীর্বাদের হাত “চ্যাম্প”র মাথায়!

ছবিটির প্রযোজক তথা মুখ্য চরিত্র দেব এর অনুরোধে পশ্চিমবঙ্গের অর্থ দপ্তরের পক্ষ থেকে মকুব করা হলো সিনেমাটির বিনোদন কর। আপেক্ষিক দৃষ্টিতে "চ্যাম্প" একটি সামাজিক ছবি।

একেবারেই প্রথম থেকেই শিরোনামে বার বার উঠে এসেছে রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত ছবি “চ্যাম্প”র নাম। মুক্তির জন্য এখনো কিছুটা সময় থাকলেও ধারাবাহিক ভাবে “চ্যাম্প” এর ভিন্নমাত্রিক চমক মুগ্ধ করেছে বঙ্গবাসী’কে। দেব‘র প্রথম প্রযোজনার ওপর ভর করে একাধিক নজিরে বাঁধা পড়েছে ছবিটি।

টুইটারের ব্লু রুমে ট্রেইলারের আত্মপ্রকাশও তার মধ্যে অন্যতম। মুক্তির প্রায় ২১ দিন বাকি থাকতেই আরোও একটি নজিরের তকমা লাগলো “চ্যাম্প”র গায়ে।ছবিটির প্রযোজক তথা মুখ্য চরিত্র দেব এর অনুরোধে পশ্চিমবঙ্গের অর্থ দপ্তরের পক্ষ থেকে মকুব করা হলো সিনেমাটির বিনোদন কর। আপেক্ষিক দৃষ্টিতে “চ্যাম্প” একটি সামাজিক ছবি। বাংলার বক্সিং ক্রিড়াকে একধাপ এগিয়ে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে ছবিটি।

এমনকি বঙ্গসন্তানদের বক্সিং এর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করার ক্ষেত্রেও তাৎপর্যের সংজ্ঞা জ্ঞাপন করতে পারে দেব এর “চ্যাম্প”। প্রশাসনিক ভাবে কোনোরকম প্রতিবেদন প্রকাশ করা না হলেও বর্তমান শাসক শ্রেণী উপরিউক্ত কারনকেই তুলে ধরেছেন কর মুকুবের পেছনে।

ছবিটির পরিচালক রাজ চক্রবর্তী‘র অভিমতে ছাড় প্রাপ্ত করের সমগ্র মূল্যই বরাদ্দ করা হবে বাংলার বক্সিং ক্রীড়ার উন্নতি সাধনে। তবে কেবল বক্সিং খেলাকেই নয়, একটি অনবদ্য বাংলা ছবি হিসেবে সমগ্র বঙ্গভূমিকেই নয়া ঐতিহ্যে বেঁধে ফেলার দায়িত্ব এখন “চ্যাম্প” এর হাতে।