কেমন ছিল রেশমার জীবনের সেই ঘটনাবহুল গল্প ?

রেশমা

ভারতীয় নারী আজ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিজয় পতাকা গাঁথছে। এমনটা নয় যে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে না তাদের, কিন্তু যদি বেশ কয়েক দশক আগের ভারতবর্ষের নারীর পরিস্থিতির সঙ্গে আজকের দিনের লড়াকু মেয়েটির তুলনা করা হয়, তবে হয়তো ভারত একটু এগিয়ে গিয়েই ভাববে। সময়কালটা ধরা যাক সত্তরের দশকের শেষ, মানুষের জীবনে, সামাজিক পরিস্থিতিতে আর সাথে সাথে একটা বেশ বড় রকমের পরিবর্তন আসছে সিলভার স্ক্রীনে। অ্যাঙরি ইয়ং ম্যান ইমেজ মানুষের মনে নতুন একটা আশা জাগিয়ে দিচ্ছে। ভারতীয় ছবিতে হিরোইজমের সংজ্ঞা বদলাচ্ছে, কেবল হিরোই নয়, হিরোইনদের পোর্ট্রেয়ালেও বেশ একটা লড়াকু ভাব আসছে বিভিন্ন ছবির সঙ্গে। আর অ্যাকশানের চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাল মিলিয়ে চাহিদা বাড়ছিল আর একটা বিষয়ের, সেটা হলো স্টান্ট বডি ডবল অ্যাকটরস। হিরোদের আড়ালের আসল ম্যাচো ম্যান হয়ে উঠছিলেন তাদের স্টান্ট ডবল রা, পিছিয়ে ছিলেননা নায়িকারাও, আগুনে ঝাঁপ দেওয়া হোক, বা শোলের বসন্তির মতো ঘোড়ার গাড়ি থেকে পড়ে যাওয়া, এই সমস্ত দৃশ্যে তাদের রুপোলি পর্দাতে ফুটিয়ে তুলছিলেন এক অকুতভয় নারী, রেশমা পাঠান!

ভারতীয় চলচ্চিত্রের প্রথম মহিলা স্টান্ট বডি ডবল রেশমা বলিউডে নায়িকাদের স্টান্ট-এর জন্য ছিলেন এক নম্বর পছন্দ। জীবনের সঙ্গে একরকম খেলা করে বারবার পারফেক্ট শর্ট দেওয়ার পিছনে তার অবদান থাকলেও, বাদবাকি স্টান্ট ডবলদের থেকে তার অবস্থা কিছু আলাদা ছিল না! সম্মান, পরিচিতি এই সব কিছুর থেকে দূরে কেমন ছিল সেই লড়াকু মেয়ের জীবন? বেশ কয়েক দশক পিছিয়ে থাকা সময়ে কেনই বা এমন এক সামাজিক ভাবে পুরুষালি তকমা পাওয়া প্রফেশন বেছে নিতে হলো তাকে? কী হলো তার পরিণতি? কেমন ছিল রেশমার জীবনের সেই ঘটনাবহুল গল্প?…এই প্রশ্ন গুলোর উত্তর দিতেই আসছে জি ফাইভ অরিজিনাল ফিল্ম শোলে গার্ল! রেশমার ভুমিকাতে ইচ্ছে খ্যাত অভিনেত্রী বিদিতা বাগ! ছবিটির স্পেশাল প্রিমিয়ার হবে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের দিন কেবল মাত্র জি ফাইভে! রেশমা পাঠানের লড়াই-এর গল্প কেবল গল্প নয়, প্রত্যেকজন ভারতবাসীর কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে থেকে যেতেই পারে, অন্তত ছবির ট্রেলর সেই কথাই বলে। নিভে আসা সত্তরের দশকের আদলে তৈরী আদ্যোপান্ত এই পিরিওড ড্রামাটির আমেজ তৈরী করা হয়েছে বেশ মনোযোগ দিয়ে।

ছবির বিষয়বস্তু ভীষণ রকম ইউনিক! ছবিটির ট্রেলর ছবি দেখার ইচ্ছাটা বাড়িয়ে দেবে, এ বিষয়টি নিশ্চিত! আর বাকিটার জন্য অপেক্ষা থাক আটই মার্চের। চোখ রাখতে ভুলবেন না জি ফাইভে!