বিশ্বকাপে এবার বলে বলে গোল দেবে বাংলার গায়করা!

ফুটবল বিশ্বকাপের জ্বরে কাবু বাংলা তথা গোটা বিশ্ব। পাড়ায় পাড়ায় উড়ছে নীল-সাদা, সবুজ-হলুদ পতাকা। কিন্তু সব খেলার সেরা ফুটবল যে বাঙালির, সেই বাঙালিদের নিজস্ব একটি টিম থাকবে না? এ কেমন অবিচার! এই অন্যায় ঘোচাতেই শমীক সেন বিশ্বকাপের টিম তালিকায় অপর একটি নাম জুড়তে উদ্যত। ‘বাংলা রক অ্যান্ড বিয়ন্ড’। একটু অবাক লাগছে না নামটা? পুরো সেট আপটি শুনলে আরো অবাক হবেন।

৪-৩-১-২ ফর্মেশানে গোলকিপার ক্যাকটাসের সাকি। দুই সেন্টার ফরোয়ার্ড ফকিরার তিমির ও চন্দ্রবিন্দুর চন্দ্রিল। ডিফেন্স খেলবেন শিলাজিত, লক্ষীছাড়ার সায়ক, চন্দ্রবিন্দুর উপলপৃথিবীর কৌশিক। মিডে থাকছেন পটা ও মরুদ্যানের পটা, অনুপম রায় ব্যান্ড থেকে অনুপম এবং ভূমির সুরজিৎ। আর স্ট্রাইকার ফসিলসের রূপম ইসলাম।

হ্যাঁ, বাংলা ব্যান্ডের দিগ্বজদের নিয়ে এই টিম গড়েছেন রক মিজউজিকের ফ্যান শমীক। এছাড়াও থাকবেন এক্স লক্ষ্মীছাড়া শুভজিৎ, শহরের অনিন্দ, ইশানের সায়ন, প্রাচীরের সৌমদীপ ও এলিয়েন্সের রাজীব। শামিক কোচ এবং প্রবীন পরামর্শদাতার পদ দিয়েছেন অভিলাষার কুট্টি এবং গৌতম চট্টোপাধ্যায়কে। ফুটবল সচিব ভূমির সৌমিত্র এবং ট্যুর ম্যানেজার চন্দ্রবিন্দুর অনিন্দ। ফিজিও ও নিরাপত্তার দায়িত্বে যথাক্রমে ক্যাকটাসের সিধু ও লক্ষীছাড়ার গাবুর উপর। ফ্যানক্লাব ম্যানেজ করবেন রূপসা দাসগুপ্ত এবং টিমের অফিসিয়াল ফটোগ্রাফার প্রশান্ত কুমার সুর।

শমীকের এই মিউজিকাল ফুটবল টিম ইতিমধ্যেই ভাইরাল ফেসবুকে। বিশ্বকাপে খেলা এই টিমের হবেনা ঠিকই কিন্তু এরা প্রত্যেকেই আলাদা আলাদা ভাবে জয় করেছেন বাঙালির মন। এজন্যই হয়তো তারা সকল ক্ষেত্রে জিততে দেখতে চায় ভালোবাসার এই মানুষগুলিকে। আর সেই ভালোবাসারই প্রতিফলন শমীকের এই কল্পনা।