মনে পড়ে আপনার সেই ছোটবেলার প্রেমগুলো?

ছোটবেলার ভালোবাসায় কেবল ভালোলাগার ভাগটাই বেশি, সেখানে কষ্ট, অভিমানেরা যদিও-বা থাকে কিন্তু বুকের ডান দিক ঘেঁষে। ছোটবেলার ভালোবাসাকে তিলেতিলে বড় করে তোলা তো আর সহজ কথা নয়!

ছোটবেলার প্রেমেরা কিন্তু বাড়ন্ত বয়সের সাথে সাথে জীবন্ত হয়ে উঠতে পারে। যেই উঠোনে বহুদিন যাবৎ ছেলেবেলার মানুষগুলো এক্কাদোক্কা খেলে বেড়ে ওঠে, সেখানে চঞ্চল পায়েতে কোনো একটি মেয়ের (গীতশ্রী) লাল বেণিতে, কোনো একটি ছেলের (রাজদ্বীপ) মনও বাঁধা পড়ে যেতে পারে এক নিমেষে। যদিও এক সন্ধ্যেবেলার শেষে তাঁরা হঠাৎ বড় হয়ে যায় ঠিক-ই, কিন্তু একটুকরো মেঘ সোনাঝুড়িতে পুষে রেখে যায় তাদের ভালোবাসা। ট্রামলাইনের ধার ঘেঁষে যখন ঘাসেরা জন্মায়, তারা তাদের পরিণতির কথা ভাবেনা, তারা বেড়ে ওঠে তাদের সহজাত বৈশিষ্ট্যে। ছোটবেলার প্রেম বা ভালোবাসা গুলোও খানিকটা তেমন, বন্ধুত্বগুলো যখন আলতা রাঙা পায়ে ঘরের পাশটায় খড়খড়ি জানলার কাছে এসে দাঁড়ায়, ভালোবাসারা তখন চুপিচুপি বেড়িয়ে আসে ফড়িং ধরবে বলে।

আসলে কি জানেন তো! ছোটবেলার ভালোবাসায় কেবল ভালোলাগার ভাগটাই বেশি, সেখানে কষ্ট, অভিমানেরা যদিও-বা থাকে কিন্তু বুকের ডান দিক ঘেঁষে। ছোটবেলার ভালোবাসাকে তিলেতিলে বড় করে তোলা তো আর সহজ কথা নয়! মা যেমন তার সন্তানকে আগলে রাখে, দশ মাস ধরে বেড়ে উঠতে দেয় নিজ গর্ভে, ছোটবেলার প্রেমগুলোও আসলে তাই, আমরাও কিন্তু তাদের বেড়ে উঠতে দি, একটু একটু করে লালন করি নিজেদের মনে। কি জানেন, জীবনের প্রতিটি মোড়েই বহু মানুষের সাথেই দেখা হয়, আলাপ হয়, সময় এগোলে ঘনিষ্ঠতাও বাড়ে কিন্তু রাত পোহালেই ফাঁকা বাসস্ট্যান্ডে একটি বাস শূন্য একাকী হয়েই পড়ে থাকে, ভবিতব্য আসলে তাই। এটিই উজানের গল্প।

আরও পড়ুন : সোনিকার মৃত্যুর রহস্য থেকে উঠবে পর্দা, সবুজ সঙ্কেত শঙ্কুদেবের !

ছোটবেলার প্রেম, বন্ধুত্ব, ভালোলাগা ওপর ভিত্তি করেই তৈরী হতে চলেছে সরকার ই মোশন’র প্রযোজনায় ঋক চ্যাটার্জী’র পরিচালনায় নতুন সিনেমা ‘অন্তর-সত্ত্বা, একটি ভালোবাসার গল্প। ইতিমধ্যে কাস্টিং ঠিক হয়ে গেছে। সিনেমায় রয়েছেন সৌমিত্র চ্যাটার্জী, তুলিকা বসু, অনিন্দ্য পুলক ব্যানার্জী, গীতশ্রী রায়, রাজদ্বীপ সরকার, ইন্দ্রনীল মল্লিক এর মতো কলা কুশলীরা। ছবির শুটিং খুব শিগগির শুরু হতে চলেছে। এখন উজানের তীব্রতা ঠিক কতখানি হতে পারে তা সময় বলবে।