টলিউডে পা রাখতে চললেন মুম্বইফেরত পরিচালক!

সাংবাদিকতা থেকে হিন্দি ধারাবাহিকে প্রযোজনা। লেখা থেকে ধীরে ধীরে পরিচালনায় হাত পাকিয়েছেন রাম কমল মুখার্জি। ইতিমধ্যে তাঁর ফিল্মোগ্রাফিতে রয়েছে ‘কেকওয়াক’ এবং ‘সিজনস্ গ্রিটিংস্ধ’। ‘কেকওয়াক’-এ অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী এষা দেওল তখতানি। রাম কমলের পরবর্তী প্রজেক্ট ‘সিজনস্খ গ্রিটিংস্’ ছিল প্রয়াত পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের উদ্দেশ্যে তাঁর শ্রদ্ধার্ঘ্য। এই ছবির প্রচারের সূত্রে কলকাতায় এসে রাম কমল সিদ্ধান্ত নেন নিজের কাজের অভিজ্ঞতাকে ব্যবহার করে একটি বাংলা ছবি বানাবেন। যেমন ভাবা তেমন কাজ। লেখক নরেন্দ্রনাথ মিত্রের লেখা ছোটগল্প ‘অভিনেত্রী’ অবলম্বনে আসতে চলেছে রাম কমল মুখার্জির প্রথম বাংলা শর্ট ফিচার ছবি ‘অভিনয়’। ছবির পোষ্টার ইতিমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।

‘অভিনয়’-এর সহপরিচালনায় থাকছেন অভ্র চক্রবর্তী। ছবির চিত্রনাট্য এবং সংলাপও লিখেছেন তিনি। ‘অভিনয়’ আসলে কিংবদন্তী পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের উদ্দেশ্যে পরিচালক রাম কমলের শ্রদ্ধার্ঘ্য। সত্যজিৎ রায় এই গল্প অবলম্বনে একটি টেলিফিল্ম তৈরী করেন। অভিনয়ে ছিলেন স্মিতা পাটিল। এরপর সন্দীপ রায়ও শ্রীলেখা মিত্র এবং কৌশিক সেনকে নিয়ে এই গল্প অবলম্বনে একটি টেলিফিল্ম বানান।

‘আমাদের ছবির সঙ্গে আগের কাজ দুটির কোনো মিল নেই, তবে আমরা গল্পের বিষয়বস্তুকে কোনোভাবে বিকৃত করব না’- বললেন ছবির পরিচালক রাম কমল।

এর আগেও প্রয়াত লেখক নরেন্দ্রনাথ মিত্রের গল্প অবলম্বনে অনেক ছবি হয়েছে। ১৯৭৩ সালে তাঁর লেখা ‘রাস’ অবলম্বনে তৈরী হয় হিন্দি ছবি ‘সওদাগর’। মূখ্য চরিত্রে ছিলেন অমিতাভ বচ্চন ও নূতন। সত্যজিৎ রায়ের ‘মহানগর’-ও নরেন্দ্রনাথ মিত্রের লেখা আঁধারিত। ১৯৬৩সালে এই ছবি দিয়েই জয়া ভাদুড়ী অভিনয়জগতে পা রাখেন। ‘অভিনয়’-এর সহ পরিচালক অভ্রর ভাষায়, ‘এছবিতে বর্তমান আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপটকে তুলে ধরা হয়েছে। মূল গল্পকে এক রেখে সমসাময়িক পারিপাশ্বিকতায় তা দেখানো হয়েছে’। ছবিতে মূখ্য নারী চরিত্রে নতুন মুখ নিয়ে কাজ করতে ইচ্ছুক পরিচালকদ্বয়। এছাড়াও টলিউডের বিখ্যাত নামেরাও থাকবেন বলে শোনা যাচ্ছে। ছবিতে সঙ্গীত করেছেন শৈলেন্দ্র সায়ন্তী এবং গানের কথা সুজয়নীল বন্দ্যোপাধ্যায়ের। পুজোর আগেই কলকাতায় শুরু হবে ‘অভিনয়’-এর শ্যুটিং।