অঞ্জন দত্ত এবার আনছেন “ব্যোমকেশ”র নতুন মুখ !

শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের থ্রিলার গল্প 'অনুকুল' আর 'অগ্নিবাণ' এই দুটির মিশেলে তৈরি করা হচ্ছে ব্যোমকেশের নতুন গল্প।

বিখ্যাত সাহিত্যকার শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৃষ্ট চরিত্র হিসেবে ব্যোমকেশ বক্সীর আবির্ভাব হয় তার সত্যান্বেষী গল্পে। বলা বাহুল্য যে আড্ডা প্রিয় ভেতো বাঙালির কাছে ব্যোমকেশ হিরো হয়ে যায়। এই ব্যোমকেশকে নিয়ে বহু রোমাঞ্চকর সিনেমা আমরা দেখেছি। আর তাতে এও দেখেছি যে অত্যন্ত শান্ত স্বভাবের ব্যোমকেশ তার শাতির দিমাকের জোরে যে কোনো রহস্যের সমাধান করে দিয়েছে অনায়াসেই।

আমরা জানি ব্যোমকেশ মানেই চুপচাপ ঘরের মধ্যে নিজেকে ঘরবন্দি করে অপরাধীকে ধরার ফন্দি আটে সে! চিন্তা করতে করতে একের পর এক সিগেরেট পুড়তে থাকে তার মুখে – তবে পরিচালক অঞ্জন দত্ত তার এবারের ব্যোমকেশকে আর ঘরবন্দি করে রাখবেন না। এই ব্যোমকেশকে দিয়ে তিনি প্রচুর অ্যাকশন করাবেন। এই সিনেমার গল্পের বহরটাও বেশ খানিকটা বাড়ছে। অঞ্জনের এই গল্পে আমরা এক অনন্য ইয়ং ব্যোমকেশকে উপভোগ করতে পারব।

সম্প্রতি সিনেমার শ্যুটিংয়ের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের থ্রিলার গল্প ‘অনুকুল’ আর ‘অগ্নিবাণ’ এই দুটির মিশেলে তৈরি করা হচ্ছে এই সিনেমার গল্প। সিনেমার গল্পের ডিমান্ড অনুযায়ী ব্যোমকেশ আর অজিতের কম বয়স দাবি করছিল। সেই সুত্র মেনেই এই নবীন ব্যোমকেশের চরিত্রে আছেন সৌমেন্দ্র ভট্টাচার্য, যে আবার বিখ্যাত “ম্যাড অ্যাবাউট ড্রামা”র হাত ধরে! আর তার অ্যাসিস্ট্যান্ট অজিতের ভূমিকায় দেখব অরিত্র-কে। গল্পের ভিলেন অনুকূল চন্দ্রের ভূমিকায় থাকছেন সয়ং পরিচালক অঞ্জন দত্ত নিজেই। এখানে জনপ্রিয় অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত আছেন একটা গুরুত্বপুর্ন চরিত্রে। শ্যুটিংয়ের ফাঁকে যিশু-অঞ্জন-সৌমেন্দ্র নিজেদেরকে ফ্রেম বন্দি করে তুলে ধরলেন সোশাল মিডিয়ার দেয়ালে।

কৌস্তভ রায় এর প্রযোজনায় এই সিনেমাটা এবছর পুজোর মরশুমেই এনজয় করতে পারবেন দর্শকরা।