এবছরের সবথেকে প্রতীক্ষিত সিনেমা ২.০ কেমন হলো !

2.0

জ রিলিজ হল এবছরের সবথেকে প্রতীক্ষিত সিনেমা ২.০। প্রথমে আসা যাক গল্পে৷ সিনেমার শুরুতেই একটা আত্মহত্যার ঘটনা দিয়ে শুরু হয়। তারপর ট্রেলারে যেটা দেখেছেন সবার মোবাইল হারিয়ে যেতে থাকে। অবস্থা এতটাই বিপজ্জনক হয়ে যায় যে চিট্টিকে ফিরিয়ে আনতে হয়৷ এইভাবে ঘটনা এগোতে থাকে। কাহিনী বিশাল কিছু না কিন্তু আড়াই ঘন্টার চিত্রনাট্য আপনাকে বোর করবে না।

চিট্টি রোবোটেসিনেমায় অভিনয় করেছেন রজনীকান্ত। বশীকরণ, চিট্টি এবং ২.০ তিন চারটি চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে। চিট্টি রোবোটের থেকে খেলনা লাগলে ২.০ এর চরিত্রে কাঁপিয়ে দিয়েছেন রজনীকান্ত৷ এই বয়সেও যেভাবে পর্দা কাঁপাচ্ছেন ভাবা যায় না। অক্ষয়কুমারও এসেছেন নানা চরিত্রে। বলিউডের গ্লামার ভেঙে বুড়ো মানুষও হয়েছেন। আবার ব্যাপক মেক আপ নিয়েও ভাল অভিনয় করে গেছেন। সিনেমার মধ্যে মাত্র একটা গান তাই দর্শককে বোর করতে দেননি শঙ্কর। এ আর রহমানের ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোরও অসাধারণ লেগেছে। রেসুল পুকুট্টির কাজও ভালো।

ভি এফ এক্সএইবার আসা যাক সিনেমার আসল বিষয়ে অর্থাৎ ভি এফ এক্স। ট্রেলার দেখে অনেকেই হতাশ হয়েছিল। কিন্তু দক্ষিনী সিনেমা ট্রেলারের উপর ভরসা করে না। বাহুবলী ২ এর ট্রেলারও তেমন কিছু ছিল না। কিন্তু হলে গিয়ে আপনার এক্সপিরিয়েন্স পাল্টে যেতে বাধ্য। শঙ্কর আপনাকে অন্য দুনিয়ায় নিয়ে যাবেন। ইমাজিনেশনকে নেক্সট লেভেলে নিয়ে গেছেন। শেষে ক্লাইম্যাক্সে আছে চমকের পর চমক। সিনেমাটার আসল মজা পাবেন থ্রিডিতে। তাই দয়া করে কিছু পয়সা বেশি খরচ করে থ্রিডিতে দেখুন। ৪ডি সাউন্ড আর ইন্ডিয়ার প্রথম থ্রি ডি ক্যামেরায় শুটিং ভিডিও আপনাকে চমক দেবেই। ভারতের প্রথম ক্লাসিক থ্রিডি সিনেমা হতে চলেছে ‘২.০‘।

2.0মোবাইল টাওয়ারের রেডিয়েশনে মরে যাচ্ছে পাখি। বন্ধ্যাত্বপ্রাপ্তি ঘটছে তাদের। এদেশের সরকারের তাতে হেলদোল নেই। নেই মানুষেরও। উন্নত দেশগুলো পদক্ষেপ নিচ্ছে কিন্তু এখানে সবাই চুপ! এই প্রশ্নটা তুলে ধরেছেন শঙ্কর। সিনেমার মাধ্যমে স্যোশ্যাল বার্তাটাও বেশ জোরালো তা দেখলেই বুঝবেন। স্যালুট প্রাপ্য এরজন্য পরিচালককে। আমার রেটিং ৮/১০