এক থিয়েটারের দারোয়ানের অভিনেতা হয়ে ওঠা – সত্যি না রূপকথা ?

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী ধুমকেতুর গল্প

ত্তরপ্রদেশের মোজাফফর নগরে বুধানা বলে এক গ্রাম, যেখানে মানুষ চেনে আখ গম আর বন্দুক। প্রাথমিক শিক্ষা পাওয়াও সেখানে কষ্টকর। নয় ভাইবোনের মধ্যে বড় ছেলেটি কয়েকটা গ্রামের মধ্যে প্রথম গ্রাজুয়েট করে কেমিস্ট্রিতে। একটা কাজও পেয়ে যায়। কিন্তু সে চাকরিতে মন বসলো না। চলে এল বোম্বেতে। এদিক ওদিক ঘুরতে ঘুরতে একদিন থিয়েটারে একটা নাটক দেখলেন। ব্যাস, মনে হল তিনি অভিনয় করার জন্যই জন্মেছেন।

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী এরপর সেখানকার দারোয়ানের কাজ নিলেন এবং থিয়েটারে ঢোকার চেষ্টা চালাতে থাকেন। কিন্তু চেহারার জন্য বার বার বঞ্চিত হলেন। এরপর ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামাতে ভর্তি হলেন৷ শেষে থাকার জায়গাও হারালেন। এক সিনিয়র তাকে থাকতে দিলেন এটা বলে যে রান্নাবান্না করে দিতে হবে। সানন্দে রাজী হলেন। ১৯৯৯ সালে সরফারোশে ছোট চরিত্র পেলেন। মুন্না ভাই এম বি বি এসে পকেটমারের ছোট্ট চরিত্র। ব্লাক ফ্রাইডেতে একটু বড় চরিত্র পেলেও কেউ চিনতো না তাকে। ভাগ্য ফেরে সুজয় ঘোষের কাহানীতে পুলিশ অফিসারের চরিত্র পেয়ে। এরপর গ্যাংস অফ ওয়াসিপুরের পর আর তাকে ফিরিয়ে দেখতে হয়নি। তিনি আর কেউ নন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীnawazuddin siddiqui & shah rukh khanযার সম্পর্কে শাহরুখ খান বলেছেন, “সত্যি কথা বলতে নওয়াজ ভাই যত বড় অভিনেতা, আমি নিজেও এত বড় অভিনেতা না। তিনি নিজেও হয়তো জানেন না তিনি কত বড় অভিনেতা। অনেক ফিল্মে কাজ করেছেন, থিয়েটার থেকে এসেছেন। নওয়াজ ভাই আসলেই অনেক বড় ও আলাদা মাপের অভিনেতা। ২৫ বছর ধরে আমি ফিল্মে কাজ করছি। এই দিক দিয়ে আমি সিনিয়র হতে পারি, কিন্তু অভিনয়ের দিক থেকে আমি মোটেও তার চেয়ে সিনিয়র না। যেকোনো অভিনয়ের কাজই তিনি অনেক আলাদা তরিকায় করেন। এবং আমরা যারা সামনে থাকি, তারা ইন্সপায়ার্ড হয়ে যাই। অভিনয়ে তার যে দ্যুতি, তা আমাদের গায়েও এসে পড়ে, যার ফলে আমাদেরকেও ভালো দেখায়।”

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী ‘মান্টো’ ‘মাঝি দ্য মাউন্টেন ম্যান’ এর মত যেমন সিনেমা করেছেন তেমনই অভিনয় করেছেন কিক বা বজরঙ্গী ভাইজানে। মেইনস্ট্রীম সিনেমায় এইজন্য অভিনয় করেন যাতে নিজের গ্রামের সিনেমা হলে লোকে তার সিনেমা দেখতে পায়। পেয়েছেন জাতীয় পুরষ্কার। কান-ভেনিস থেকে অস্কার ঘুরে এসেছে তাঁর বহু ছবি। হালে স্যাক্রেড গেমস সিরিজও দুনিয়া কাঁপিয়েছে। অকপট দিলখোলা মানুষটার জীবন সত্যিই সিনেমার মতই।