তবে কি পাল্টে যাচ্ছে বলিউড ?

পাল্টে

লিউড মানেই জাঁকজমক ব্যাপার স্যাপার। মাল্টিস্টারদের নাচ গান তো বটেই, ধুম ধাড়াক্কা লজিকহীন অ্যাকশনে ভরপুর। তারাই এতদিন রাজত্ব করে এসেছে। কিন্তু ২০১৭ থেকেই বোঝা যাচ্ছে পাল্টে যাচ্ছে বলিউড। পাল্টে যাচ্ছে দর্শক।

Toilet Ek Prem Katha২০১৬-১৭ তে রিলিজ হয় বেফিকরে, জব হ্যারি মেট সজলের মত বলিউডের চেনা কিছু প্রেমের ছবি। স্টার কাস্ট কিংবা দারুন লোকেশন থাকা সত্ত্বেও মুখ থুবড়ে পড়ে এইসব সিনেমাগুলো। সেখানে বরেলি কি বরফি, শুভ মঙ্গল সাবধানের মত কম বাজেটের প্রেমের ছবিগুলো হিট হচ্ছে। অক্ষয়কুমারের মত গ্লামারাস নায়ক টয়লেট এক প্রেমকথা বা প্যাডম্যানের মত সিনেমা করছে। যেখানে অক্ষয়কে সাধারন মধ্যবিত্ত শ্রেনীর চরিত্র হিসাবে দেখা যায়৷ বোঝাই যাচ্ছে দর্শক এখন সাধারন মানুষের প্রেমকাহিনী দেখতেই বেশি অভ্যস্ত হচ্ছে। কথায় কথায় নিউজিল্যান্ড বা ইংল্যান্ডে যাওয়াটা তাদের পছন্দ হচ্ছে না৷

মনমর্জিয়াসলমন খানের অ্যাকশন সিনেমাগুলোরও একই দশা৷ ওপেনিং এ কিছু টাকা এনে দিলেও দর্শকের মন ভরছে না৷ গ্লামারাস চরিত্র আর পছন্দ নয় দর্শকদের। ২০১৮ তে এসে সেই ট্রেন্ডটা আরো জোরালো হয়েছে৷ ভাবা যায় এইবছর ‘স্ত্রী‘ সিনেমা সবথেকে শতকরা হারে বেশি লাভের মুখ দেখেছে! অন্ধাধুন, বধাই হো, অক্টোবর, মনমর্জিয়া কোনটাই বেশি বাজেটের সিনেমা নয়। নায়কও কোন গ্লামারাস চরিত্রে আবির্ভূত নয়। এবছর ‘সঞ্জু‘ আর ‘বাগী‘ ছাড়া সেভাবে বিগ বাজেটের হিট সিনেমা কম। থাগস অফ হিন্দুস্থানও সেভাবে পারলো না দর্শকের মন জয় করতে। রাজত্ব করছে কনটেন্ট নির্ভর কম বাজেটের সিনেমাগুলো। ছোট ছোট ডিরেক্টর বা প্রোডিউসারদের কাছে এটা একটা আশার খবর। দর্শকরা পাল্টালে ভালো সিনেমা আরো তৈরি হবে।

Written By – শোভন নস্কর