ভালো-মন্দ মিশিয়েই তৈরি হয় আমাদের ‘খেলাঘর’!

“খেলাঘর” শব্দটা মাথায় এলেই আমাদের চিন্তা চলে যায় ছোটবেলার ফেলে আসা একঝাঁক স্মৃতির পাতায়, যেখানে ছোটরা প্রায়শই তাদের খেলার বিভিন্ন জিনিস দিয়ে তৈরি করে ফেলে একটা ঘর, আর সেখানে বসতি ঘটায় এক সুখী সংসারের। কিন্তু খেলাঘর যে অস্থায়ী, আদপে তার অস্তিত্ব মাত্র দিন কয়েকের। সেটাও যেমন একটা সময়ের পর ভেঙে যায়, তেমনি ভেঙে যায় তাদের নিত্যদিনের স্বপ্নগুলোও। ঠিক সেরকমই আমরা মানুষেরা অনেককিছুই আগে থেকে পরিকল্পনা করে থাকি, কিন্তু তার সবটা পূরন হওয়া যেমন সম্ভব নয়, ঠিক সেরমই আবারও নতুন করে কোন স্বপ্ন দেখাটাও অসম্ভব নয়। সেরকমই কিছু বাস্তব-অবাস্তব ভাবনাতেই রবি ঠাকুরের এই গান ‘খেলাঘর বাঁধতে লেগেছি’ যা তিনি  নিজের ভাবনায় কথা ও সুর মিলিয়ে একদিন গেয়েছিলেন, সেই গানেরই আবারও নতুন ভাবে পুনরাবৃত্তি করলেন সরকার ই মোশন প্রযোজিত বিহান সেন ও ঋক চ্যাটার্জী পরিচালিত আপকামিং ‘অন্তর সত্তা’ ছবিতে।

সংগীত পরিচালক চিরন্তন ব্যানার্জীর মিউজিক উপস্থাপনায় গানটি গেয়েছেন  জয়তী চক্রবর্তী।‌ সিনেমাটিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন রাজদীপ সরকার, গীতশ্রী রায়, এটি তাদের ফার্স্ট ডেবিউ ফিল্ম।

এই গান সম্পর্কে অভিনেত্রী গীতশ্রী রায় আমাদের কে জানালেন তার কাছে খেলাঘরের অস্তিত্বটা ঠিক কতখানি?। তাঁর কথায় –

“মানুষ হয়ত চেষ্টা করতে পারে, তবে কিছুটা ভাগ্যের হাতেও থাকে। কোন ভালো কিছুকে খারাপ করাটাও যেমন মানুষের হাতে, আবার কোন খারাপকে ভালো করাটাও মানুষেরই হাতে। কিন্তু সময়ে-অসময়ে মানুষ হারিয়ে ফেলে সঠিকটাকে খুঁজে পাওয়ার রাস্তা, তবে একটা টাইমের পর মানুষই পারে সেটাকে ঠিক করে নিতে। অর্থাৎ সব খেলাঘর হয়ত আমাদের মনের মত করে পাওয়া হয়না, তবে যদি সত্যিই কেউ মন থেকে কিছু চায়, হয়ত তার বাস্তবায়ন সম্ভব হয়।”

এখন আপনারাও দেখেনিন ছবির সেই গান এবং আমাদের জানান আপনাদের মতামত।