‘যাক চুলোয় যাক!’, বলা সহজ কিন্তু করা কঠিন!

যাক চুলোয় যাক, খুবই পরিচিত একটা শব্দ, আপামর বাঙালির ব্যর্থতার শেষে মুখে শান্তির বানী, এটা বলা অনেক সহজ কিন্তু করা খুবই কঠিন, যেমন ধরুন যেকোন সম্পর্কে মানে বিয়ে বা প্রেমে আমরা একসময় তিতিবিরক্ত হয়ে বলেই ফেলি, ‘যাক চুলোয় যাক’! কিন্তু যে একবার বৌয়ের হাতে চা খাওয়াটা অভ্যেস করে ফেলেছে তার পক্ষে কি সম্ভব নিজের হাতের চা’তে সেই স্বাদ আস্বাদন করা? সম্ভব না আর এটাই তো ভালোবাসা!

এইরকমই একটা পরিস্থিতি এখন দাঁড়িয়ে সত্রাজিৎ সেনের পরিচালনাতে ‘মাইকেল’র মীর। জীবনের পথ কখনও খুব সোজা হই না। সাফল্য ও ব্যর্থতার সিঁড়ি বেয়েই আমাদের পাড়ি দিতে হয় সেই পথ, কিন্তু ব্যর্থতার মাপকাঠি যখন ছাড়িয়ে যায় সীমা, তখন জীবনে নেমে আসে হতাশা। আর সেই হতাশা যখন নিয়ে আসে ক্লান্তি তখন সান্ত্বনা হিসাবে দীর্ঘশ্বাসের সাথে মুখথেকে বেড়িয়ে আসে যাক চুলোয় যাক। প্রেম, প্রবলেম, হাসি-কান্না, ভালোবাসা ভুল বোঝা বুঝি, এই ঝুটঝামেলার গোলক ধাঁধায় নিয়ত ঘুরে মরি আমরা। প্রতিদিন বেঁচে থাকার সাথে চলতে থাকে ভাল থাকার লড়াই, প্রতিদিন চলতে থাকে ভাল রখার চেষ্টা, আর সব চেষ্টা যখন ব্যর্থ, আর যখন সব যেতেই চায়, তখন যাক না, সব চুলোয় যাক, যত সস্তার স্বপ্নেরা, এমনটাই বলছে মীর আর স্বস্তিকা’র পরবর্তী ছবি মাইকেলের গান ‘যাক চুলোয় যাক’।

ছবির এই গানটি গেয়েছেন তিমির বিশ্বাসলগ্নজিতা। আপনারও শুনুন গানটা এবং নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন ভালোবাসার কতো রূপ! এইরকম মুহূর্ত আপনাদের জীবনেও এসেছে এখন আপনারাই বলুন এটা বলা কতোটা সহজ কিন্তু করা কতোটা কঠিন?