‘চাবিওয়ালা’র এবার প্রেমের ‘উড়ান’!

‘চাবিওয়ালা’ ছিলো একটি মনস্তাত্ত্বিক ছবি। তবে শেষমেষ পরিচালক রাজা ঘোষের কলম চললো প্রেমের গল্পের ওপরেই। সমাজ এবং সমাজ চেতনা নিয়ে ব্যস্ত থাকা এই পরিচালক হটাৎ করে প্রেমের দিকে ঢলে পড়লেন কেন, এই প্রশ্ন অনেককেই ভাবাতে পারে। কিন্তু পরিচালক রাজা ঘোষের আসল উদ্দেশ্য যখন সমাজে চেতনা জাগানো তখন প্রেমের গল্প দিয়ে কেন নয়?

তাই ‘চাবিওয়ালা’র সৃষ্টিকর্তা এবার নিজে হাতে গড়ে ফেললেন একটি প্রেমের গল্প। বাস্তবের সাথে এর হুবুহু মিল।
প্রেম এবং তাঁর টানাপোড়েন, রাজা ঘোষের পরবর্তী ছবির প্রেক্ষাপট এটাই। হালফিলাল প্রেমের রিলেশন গুলো যেমন হয়ে থাকে আর কি।

যাদের নুন আনতে পান্তা ফুরোয় প্রেম তারাও করে। তবে শেষমেষ পকেটের টানে সেসব প্রেমের দফারফা হয়ে যায়। আরও এক রকম প্রেমের সাথেও এই ছবিতে পরিচিত হওয়া যাবে। আপনি হয়তো অপেক্ষা করছেন একটি চিঠির জন্য। চিঠি না হয়ে একটি ফোন কল’ও হতে পারে। অপেক্ষার পারদ চড়িয়ে আপনি মাথা চুলকেই যাচ্ছেন কিন্তু শেষমেষ ফোনের দেখা নেই। দেখা নেই সেই প্রিয় মানুষটিরও। আপনার অবস্থা তখন “কখন আসবে তোমার টেলিফোন”র মতো গানের ভাষায় ফুটে উঠবে।

এইরকমই ভিন্ন ভিন্ন কয়েকটি প্রেমের গল্প নিয়েই ছবিটি তৈরি করেছেন রাজা ঘোষ। আর তার নাম রেখেছেন “উড়ান”। তবে উড়ান কোনো ফিচার ফিল্ম নয়, এটি একটি মিনিট তিরিশের গন্ডী দেওয়া শর্টফিল্ম। সাহেব ভট্টাচার্য্য এবং পৌলমী দাস’কে দেখতে পাওয়া যাবে মুখ্য ভূমিকায়। থাকবেন শাশ্বতী গুহঠাকুরতা’ও।

এবার যেহেতু প্রেমের গল্প নিয়ে কাজ হচ্ছে তাই মুক্তির জন্যও প্রেমেরই একটি মরসুম খুঁজে বেড়াচ্ছেন পরিচালক রাজা ঘোষ। আর ভ্যালেন্টাইনস ডে’র থেকে শ্রেষ্ঠ প্রেমের মরসুম কারোর মাথাতে আসতেই পারে না। তারওপর সামনেই যখন ১৪ই ফেব্রুয়ারী তখন কথা বাড়িয়ে আর লাভ নেই। এতএব এবার শুধু অপেক্ষা এই প্রেমের ‘উড়ান’এ নিজেকে সামিল করার…চোখ রাখুন গুলগালে…