বিদ্যা বালানের হাত থেকে পুরষ্কার নিলেন এই বাঙালি!

সাংবাদিকতার মাঝেই লেখালেখির কাজ শুরু করেছিলেন। ছোটখাটো কাটাকুটির মধ্যদিয়েই তাঁর অন্যতম আবিষ্কার ছিলো ‘লং আইসল্যান্ড আইসড টি’। হয়তো কেবল আবিষ্কার বললে ভুল হবে, এটি একটি সাহস’ও ছিলো প্রযোজক তথা সাংবাদিক তথা লেখক রামকমল মূখার্জী’র কাছে। যার প্রতিফলন আমরা দেখতে পেয়েছিলাম ‘বিয়ন্ড দ্য ড্রিম গার্ল’ নামক বায়োগ্রাফিতে।

১৯৬৮ সালে পরিচালক মহেশ কল পরিচিত করিয়েছিলেন হেমা মালিনী নামের একজন নায়িকার সাথে। আর রামকমল যে হেমা মালিনীর জন্য কলম ধরলেন তিনি নায়িকা বাদেও আরও অনেক বড় ব্যক্তিত্ব সারা বিশ্বের মানুষের কাছে। এই বায়োগ্রাফিটার জন্ম না হলে হয়তো এতো কাছের থেকে চেনা সম্ভবই হতো না রুপোলী পর্দার ড্রিম গার্লকে।

‘বিয়ন্ড দ্য ড্রিম গার্ল’ রামকমল’র হাতে ইতিমধ্যেই দুটি অ্যাওয়ার্ড তুলে দিয়েছে। এরপর আরও একটি পালকও জুড়ে গেলো তাঁর মুকুটে। বই প্রকাশক সংস্থা হার্পার কলিন্স’র পক্ষ থেকে বেস্ট বায়োগ্রাফারের অ্যাওয়ার্ড তুলে দেওয়া হলো রামকমল’কে। এই অ্যাওয়ার্ডটি তুলে দেন বিদ্যা বালান এবং মৌসুমী চ্যাটার্জী। এদিন মুম্বাইয়ের একটি পাঁচতারা হোটেল বাদেও এই সুন্দর মুহুর্তের সাক্ষী ছিলেন বলিউডের বহু নামিদামী কলাকুশলীরা।