টলি ইন্ডাস্ট্রির ‘সুভাষ ঘাই’ তাহলে অরিন্দম শীল?

এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে অরিন্দম শীলকে যদি বাংলা ইন্ডাস্ট্রির সুভাষ ঘাই বলা হয়, তাহলে সেটা হয়তো খুব-একটা অত্যুক্তি বলে মনে করবেন না কেউই।

এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে অরিন্দম শীলকে যদি বাংলা ইন্ডাস্ট্রির সুভাষ ঘাই বলা হয়, তাহলে সেটা হয়তো খুব-একটা অত্যুক্তি বলে মনে করবেন না কেউই। শুধুমাত্র বিষয়বস্তুর বৈচিত্র্যেই নয়, সিনেমায় নতুন মুখ লঞ্চ করার ক্ষেত্রেও টলিউডের অনেক তাবড়-তাবড় পরিচালককে পেছনে ফেলে দিয়েছেন তিনি। এমনকি সুভাষবাবুর মত অরিন্দমবাবু তাঁর সিনেমাতে একটা ফ্রেমের জন্য হলেও থাকবেন! প্রথম ছবি আবর্ততেই হইচই ফেলে দিয়েছিল তাঁরই মাধ্যমে টলিউডে নতুন আসা জয়া এহসানের অভিনয়। জয়া এখন দুই বাংলারই চলচ্চিত্র জগতে প্রতিষ্ঠিত নাম – অরিন্দমের ব্যানার ছাড়াও অন্য বহু সিনেমায় তাঁর উপস্থিতি ও অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে।

সোহিনী সরকারের ভিত শক্ত করার পেছনেও যথেষ্টই অবদান আছে অরিন্দমের। একাধিক ছবিতে তাঁকে সফলভাবে ব্যবহার করেছেন তিনি। এমনকি, অনির্বাণ ভট্টাচার্য – যিনি আজ ইন্ডাস্ট্রির একজন পরিচিত মুখ – তাঁকেও ঈগলের চোখে একটি জটিল চরিত্রে অভিনয় করিয়ে দর্শকদের প্রশংসা আদায় করে নিয়েছিলেন অরিন্দম।

শবর সিরিজের তৃতীয় সিনেমার নির্মাণে ব্যস্ত অরিন্দম নিজের সেই ধারাকে অক্ষুণ্ণ রেখেই এবার বেছে নিয়েছেন একঝাঁক নতুন মুখ। দিতি, তুহিনা, দর্শনা, অনামিকা, প্রিয়াঙ্কা… নবাগত প্রতিভাদের নিয়েই চলছে ছবির কাজ। অরিন্দম জানালেন, এসভিএফ‘র ব্যানারে শবর সিরিজের এই তৃতীয় ছবি এবার শুধু কলকাতাতেই শুটিং হচ্ছে না, কাজ চলবে কলকাতার বাইরে, এমনকি লখনৌতেও। সব মিলিয়ে অনেকগুলি চরিত্র এবং ঘটনার ঘনঘটায়, নতুন শবর যে এই সিনেমার বাকি দুটি সিনেমার মতোই জনপ্রিয় হবে, তা নিয়ে আমরা সবাই আশাবাদী!

নতুন শবরের সিনেমা রিলিজ করতে চলেছে আগামী জানুয়ারিতেই। টানটান গল্প, নতুন মুখ আর চেনা শাশ্বত, সঙ্গে অরিন্দমের পরিচালনা – বাঙালির শীতের ছুটিটা বেড়ে কাটবে এবার!