জনপ্রিয় এই উপন্যাসকেই বেছে নিলেন অনিন্দ্য তাঁর পরবর্তী সিনেমার জন্য!

শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের জনপ্রিয়তা নিয়ে নতুন করে আর কিছু লেখার নেই। তাঁর প্রতিটি উপন্যাসই পাঠকমহলে আদৃত, কাহিনীসার থেকে চলচ্চিত্রও হয়েছে বেশ কয়েকটি। আর তাই, তাঁর পাঠকের সংখ্যা নিতান্ত কম নয়। প্রিয় লেখকের জন্মদিনে তাদের উচ্ছ্বাসও খুবই স্বাভাবিক!

কিন্তু এ-বছর উচ্ছ্বাসের মাত্রা যেন বেশিই মনে হচ্ছে? ঠিকই ধরেছেন! আসলে, শীর্ষেন্দুভক্তরা লেখকের জন্মদিনেই পেয়েছেন আর-একটি খুশির খবর! লেখকের অদ্ভুতুড়ে সিরিজের প্রথম বই, “মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি” নিয়ে সিনেমা তৈরির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হলো যে এইদিনই! এবং কাস্টিং এও থাকছে ভালো চমক।

শিশুকিশোরদের জন্য লেখা অদ্ভুতুড়ে সিরিজ বাংলা সাহিত্যে শীর্ষেন্দুর ট্রেডমার্ক বলাই যায়। পূজাবার্ষিকী আনন্দমেলার পাতায় প্রতিবছরই বয়সের সীমা ছাড়িয়ে আট থেকে আশি সবাই বুঁদ হয়ে থাকে এই অদ্ভুত উপন্যাসগুলোতে। মানুষের পাশাপাশি উপন্যাসগুলোয় খুব সহজে জায়গা করে নেয় ভূত-পশুপাখি-এলিয়েন-চোরডাকাত-সায়েন্টিস্ট-গোয়েন্দা-পাগল… আরও কত কে! সেই সিরিজেরই প্রথম উপন্যাস “মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি”-ও তার গল্পের গুণে পাঠকদের বরাবরই প্রিয়। সেই গল্প নিয়েই সিনেমা হলে প্রত্যাশার পারদ তরতর করে চড়াটাই তো স্বাভাবিক!

এবং যে-সে নন! স্বয়ং অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় নিয়েছেন পরিচালনার দায়িত্ব – ইতিমধ্যেই “ওপেন টি বায়োস্কোপ” এবং “প্রজাপতি বিস্কুটে” যিনি মন জয় করে নিয়েছেন বাঙালি দর্শকের। সিনেমার প্রযোজনাতেও রয়েছে চেনা মুখ নন্দিতা-শিবপ্রসাদ জুটির সাথে অতনু রায়চৌধুরী।

সব মিলিয়ে, হীরের আংটি, পাতালঘর, ছায়াময় কিম্বা গোঁসাইবাগানের ভূতের পর আরও একবার শীর্ষেন্দুর গল্পে মাত হতে আর বেশি দেরি নেই পাঠক-দর্শকদের!